আটকেই গেল ‘পদ্মাবতী’র মুক্তি

বিনোদন ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২০ নভেম্বর ২০১৭, ০৯:১২ | প্রকাশিত : ২০ নভেম্বর ২০১৭, ০৯:০৭

শুটিংয়ের সেট হোক বা চায়ের আড্ডা, গত কয়েক মাস যাবত সারা ভারতের কোথাও আলোচনার শেষ ছিল না সঞ্জয় লীলা বানসালির ‘পদ্মাবতী’ ছবিকে ঘিরে। কারণ অবশ্যই বিতর্কিত।

দীপিকার নাক, পরিচালকের মাথা কাটার ‘নিদান’, শুটিংয়ের সেটে হামলা ইত্যাদি তো ছিলই। গতকাল আবার অভিনেত্রী দীপিকারও মাথা কাটার হুমকি দিয়েছেন হরিয়ানা বিজেপির জ্যেষ্ঠ এক নেতা। মাথার দাম নির্ধারণ হয়েছে ১০ কোটি রুপি।

সম্প্রতি সেন্সর বোর্ডের কোপ এবং রাজনৈতিক মহলেও ছবি নিয়ে জোর আলোচনা শুরু হয়। এত সব বিতর্কের মুখেই রবিবার ছবির প্রযোজনা সংস্থা ভায়াকাম ১৮ মোশন পিকচার্স জানায়, ‘পদ্মাবতী’র মুক্তি পিছিয়ে দেয়া হয়েছে। কবে মুক্তি পাবে সেটা পরে জানিয়ে দেয়া হবে।

সঞ্জয় লীলা বানসালির ছবি নিয়ে বিতর্ক নতুন কিছু নয়। এর আগে পিরিয়ড ড্রামা ‘বাজিরাও মাস্তানি’ ছবি মুক্তির আগেও জোর বিতর্ক শুরু হয়েছিল। তবে তা ‘পদ্মাবতী’র মতো এমন মাত্রা পায়নি। শুটিং শুরু হওয়ার পর থেকেই ছবিকে কেন্দ্র করে একের পর এক বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। এর জন্য পরিচালক বানসালির ওপর হামলাও হয়। গোটা ব্যাপারের পেছনে শ্রী রাজপুত করণি সেনার প্রত্যক্ষ ভূমিকা ছিল।

‘ঘুমর’ গানটি মুক্তি পাওয়ার পর বিতর্ক চরমে ওঠে। বলা হয়, যে সময়ের ঘটনা ছবিতে দেখানো হয়েছে, সে সময় কোনো রাজপুত রানী প্রকাশ্যে এভাবে নাচতেন না। এর মধ্যে নানা রাজনৈতিক দলের নেতা-নেত্রীরাও মাঠে নেমে পড়েন। চারিদিক থেকে ধেয়ে আসে সমালোচনা ও কথার বোমা। ব্যক্তিগত আক্রমণ ওঠে চরমে।

গত শনিবার রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজে কেন্দ্রকে চিঠি দিয়ে জানায়, ছবিতে প্রয়োজনীয় পরিবর্তন করে তার পর মুক্তির দিন ঠিক করা হোক। যাতে কোনো সম্প্রদায়ের ভাবাবেগ ক্ষুন্ন না হয়। এর পরই ছবির মুক্তি পেছানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

ঢাকাটাইমস/২০নভেম্বর/এএইচ    

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত