আখাউড়ায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৫

আখাউড়া (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২০ নভেম্বর ২০১৭, ১৭:০২

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় ইট ভাটার দখল ও আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ ঘটেছে। এতে ইট ভাটার মালিক এ সগীরসহ অন্তত পাঁচজন আহত হয়েছেন।

সোমবার সকালে আখাউড়া উপজেলার পাশ্ববর্তী সিঙ্গার বিল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে। ঘটনার পর এ সগীরের লোকজন উত্তেজিত হয়ে আখাউড়া-চান্দুরা সড়কের রামধনগর এলাকায় রাস্তায় গাছেরগুঁড়ি ফেলে যান চলাচল বন্ধ করে দেয়। এতে ঘণ্টাব্যাপী যান চলাচল বন্ধ থাকে। এসময় এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করে। ওই হামলায় এ সগীর আহম্মদ ছাড়াও তার ছেলে আনাছ আহম্মদ, আত্মীয় রাজীব হোসেন, হানিফসহ অন্তত পাঁচজন আহত হন।

বিষয়টি নিয়ে আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোশারফ হোসেন তরফদার বলেন, সৃষ্ট ঘটনায় আখাউড়া-বিজয়নগর ও বিজয়নগর-আখাউড়া চলাচলকারী সিএনজি অটোরিকশাসহ বিভিন্ন যান চলাচল সাময়িক বন্ধ ছিল। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

তিনি জানান, ওই ঘটনায় আখাউড়া এলাকায় অস্থিতিশীল পরিস্থিতির সঙ্গে জড়িত সন্দেহে দুই যুবককে আটক করা হয়েছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, আখাউড়া পৌরশহরের দুর্গাপুর গ্রামের বাসিন্দা সগীর আহম্মদ এবং পার্শ্ববর্তী বিজয়নগর উপজেলার সিঙ্গারবিলের আব্দুর রশিদ আবু মিয়া যৌথ মালিকানায় সিঙ্গারবিল এলাকায় ‘এ সগীর’ নামে একটি ইটভাটা গড়ে তোলা হয়। ওই ইট ভাটা নিয়ে দুইজনের মধ্যে দীর্ঘদিনের বিরোধ ছিল। বিষয়টি স্থানীয় ও প্রশাসনিকভাবে একাধিকবার মীমাংসার চেষ্টাও করা হয়। সোমবার সকালে এ নিয়ে দুইজনের মধ্যে বাকবিতণ্ড হয়। পরে ওই বিরোধের জের ধরে সিঙ্গারবিলের আবু মিয়ার লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সগীর ও তার লোকজনের ওপর হামলা চালান। এ ঘটনার খবর পেয়ে সগীর আহম্মদের লোকজন উত্তেজিত হয়ে আখাউড়া-চান্দুরা সড়কের আখাউড়া উপজেলার উত্তর ইউনিয়নের আজমপুরের রামধনগর এলাকায় সড়কের গাছের গুঁড়ি ফেলে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ করে দেয়।

(ঢাকাটাইমস/২০নভেম্বর/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত