মানিকগঞ্জে লুট হওয়া স্বর্ণ উদ্ধারে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রীর নির্দেশ

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২০ নভেম্বর ২০১৭, ২০:৪০
ফাইল ছবি

মানিকগঞ্জ শহরের স্বর্ণকারপট্টিতে নাগ জুয়েলার্সে ডাকাতির ঘটনায় স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের নিরাপত্তার আশ্বাস দিয়েছেন মানিকগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক। এ সময় তিনি লুট হওয়া স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার এবং স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের সার্বিক নিরাপত্তার বিষয়ে পুলিশ প্রশাসনকে নির্দেশ দেন।

সোমবার দুপুরে জেলা সার্কিট হাউজে স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় জাহিদ মালেক এই নির্দেশ দেন। এই সভায় পুলিশ সুপার মাহফুজুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক বাবুল মিয়া, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুস সালাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুলতানুল আজম খান আপেল, জেলা স্বর্ণশিল্পী সমিতির সভাপতি আতোয়ার রহমান, সাধারণ সম্পাদক রঘুনাথ রায় ও নাগ জুয়েলার্সের মালিক তপনসহ শতাধিক স্বর্ণ ব্যবসায়ী উপস্থিত ছিলেন।

স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘জেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে আমরা গর্ব করে আসছি। কিন্তু গত এক মাসে শহরে ছিনতাইকারীদের হাতে একটি খুন ও স্বর্ণের দোকানে দুর্ধুর্ষ ডাকাতির ঘটনায় আমরা বিব্রত।’

স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের কাছে পুলিশ ও এনএসআইয়ে এক কর্মকর্তার চাঁদা দাবির অভিযোগ সম্পর্কে ঈঙ্গিত দিয়ে তিনি বলেন, ‘যা রটে তা কিছুটা বটে। তবে কাউকে অন্ধভাবে দোষারোপ করা উচিত নয়।’

স্বরাষ্টমন্ত্রী ও পুলিশের আইজিপির  সঙ্গে এসব বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে জানিয়ে জাহিদ মালেক আরও বলেন, ‘যথাযথ কর্তৃপক্ষ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবে। বিষয়টি সর্বোচ্চ গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করা হচ্ছে।’ তিনি বলেন, ‘এই ঘটনাগুলোর সঙ্গে কোনো ষড়যন্ত্র আছে কি না তা খতিয়ে দেখতে হবে। নাগ জুয়েলার্সকে কেন টার্গেট করা হলো, স্থানীয় কেউ আছে কি না তা খতিয়ে দেখতে হবে।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আমেরিকাতেও প্রতিদিন এ ধরনের ঘটনা ঘটছে। মানুষ খুন হচ্ছে। সবাইকে ঐক্যবদ্ধ ও ধৈর্য ধরে পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে হবে।’

এর আগে পুলিশ সুপার মাহফুজুর রহমান বলেন, স্বর্ণের দোকানে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত আসামিদের মধ্যে তিনজনকে গ্রেপ্তার ও কিছু স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার করা হয়েছে। ডাকাতির সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তার ও লুট হওয়া মালামাল উদ্ধারে পুলিশকে সময় দিতে হবে। আগামী এক মাসের মধ্যে লুট হওয়া স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধারসহ জড়িতদের গ্রেপ্তার করা হবে।

পুলিশ কর্মকর্তার নামে চাঁদাবাজির অভিযোগ ওঠার বিষয়টি ঈঙ্গিতে দিয়ে সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুস সালাম বলেন, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নিতে হবে।

সভা শেষে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বর্ণকারপট্টি এলাকায় যান এবং ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

প্রসঙ্গত, গত বুধবার সন্ধ্যায় অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ডাকাতেরা শহরের নাগ জুয়েলার্স থেকে প্রায় ৭০০ ভরি স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায়। এই ঘটনায় ডাকাতদের সাথে সাটুরিয়াতে বন্দুকযুদ্ধে চার পুলিশ আহত হয়। ঘটনার দিন জনতার সহায়তার একজন  ও পুলিশ পরে আরো দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে। এর ছয় দিন আগে জেলা পুলিশের একজন ও এনএসআইয়ের একজন কর্মকর্তা স্বর্ণশিল্পী সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কাছে দুই কোটি টাকা চাঁদা দাবি করেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়।

(ঢাকাটাইমস/২০নভেম্বর/প্রতিনিধি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত