মৃত স্ত্রীকে দেখতে এসে স্বামীও মৃত্যুর কোলে

কুমিল্লা প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২১ নভেম্বর ২০১৭, ১৬:৫০

স্ত্রী মারা গেছেন এমন সংবাদ শুনে শোকে বিধ্বস্ত হয়ে ঢাকা থেকে ফিরছিলেন বাড়িতে। তবে বাড়ি পর্যন্ত পৌঁছতে পারেনি, বাড়ির পাশে এসে জ্ঞান হারান ওই স্বামী। পরে হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎক মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার বামনিশাইর গ্রামে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

মারা যাওয়া দুইজন হচ্ছেন দেবিদ্বার উপজেলার এলাহাবাদ ইউনিয়নের বামনিশাইর গ্রামের মোখলেছুর রহমানের ছেলে আনোয়ার হোসেন (২৮) ও তাঁর স্ত্রী একই গ্রামের হাবিবুর রহমানের মেয়ে রিফা আক্তার (২৪)। এক বছর আগে তাদের বিয়ে হয়।

পারিবারিক সূত্র জানায়, গত সোমবার সন্ধ্যায় রিফা আক্তার স্বামীর বাড়ির পুকুরের ঘাটলায় বসে মোবাইলফোনে ঢাকায় স্বামী আনোয়ারের সঙ্গে কথা বলছিলেন। এক পর্যায়ে মৃগী রোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি পুকুরের পানিতে ডুবে যান। বাড়ির লোকজন পুকুর হতে তার নিথর দেহ উদ্ধার করে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

স্ত্রীর মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে স্বামী আনোয়ার হোসেন রাতে ঢাকার রামপুরা থেকে বামনিশাইরের নিজ বাড়িতে রওনা দেন। রাত তিনটায় তিনি বাড়ির কাছাকাছি এসে পৌঁছান। এ সময় তিনি স্ত্রীর নাম ধরে চিৎকার করে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। পরে পথচারীরা বাড়িতে খবর দেন। তাকে হাসপাতালে নেয়ার পর মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।  

স্ত্রী ও স্বামীর এ মৃত্যুর সংবাদ শুনে এলাকাবাসী বামনিশাইর গ্রামের বাড়িতে ভিড় জমায়। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে দুইজনের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

আনোয়ারের বড় বোন শিউলী বেগম ঢাকাটাইমসকে বলেন, তাঁর ভাই ঢাকার রামপুরার একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতেন। স্ত্রীর মৃত্যুর সংবাদ শুনে তাঁর ভাই বাড়িতে আসার পথে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। পরে স্থানীয় হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনিও মারা যান।

এ বিষয়ে দেবিদ্বার থানার ওসি মিজানুর রহমান ঢাকাটাইমসকে বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তে স্বামী-স্ত্রীর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/২১নভেম্বর/প্রতিনিধি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত