রংপুর সিটি নির্বাচনে মেয়র পদে ১৩ প্রার্থীর মনোনয়ন জমা

ব্যুরো প্রধান, রংপুর
| আপডেট : ২২ নভেম্বর ২০১৭, ২১:২৯ | প্রকাশিত : ২২ নভেম্বর ২০১৭, ২০:৪৮

রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ১৪ প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেও শেষ পর্যন্ত জমা দিয়েছেন ১৩ জন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বর্তমান মেয়র সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। কিন্তু বিএনপি ও জাতীয় পার্টি থেকে দুইজন করে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। আগামী ২৫ ও ২৬ নভেম্বর মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই করা হবে। প্রার্থীরা ৩ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নিতে পারবেন। চার ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ করা হবে। ২১ ডিসেম্বর ভোট গ্রহণ করা হবে।

রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্র সরকার জানান, ১৩ জন প্রার্থীর মধ্যে রংপুর সিটি করপোরেশনের বর্তমান মেয়র সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

বিএনপির মনোনীত প্রার্থী কাওসার জামান বাবলা, জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা। তবে, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের ভাতিজা হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ ও রংপুর যুবদলের সভাপতি নাজমুল ইসলাম নাজুও মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এর মধ্যে আসিফ মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে।

ন্যাশনাল পিপলস পার্টির প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন সেলিম আখতার। ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন থেকে এটিএম গোলাম মোস্তফা, বাসদের প্রার্থী আব্দুল কুদ্দুস, স্বতন্ত্র প্রার্থী সুইটি আঞ্জুম, মেহেদী হাসান বনি, আব্দুল মজিদ, শাকিল রায়হান ও সাবেক মেয়র একেএম আব্দুর রউফ মানিক মনোনয়নপত্র জমা দেন।

সংরক্ষিত কাউন্সিরর পদে ৩৩টি ওয়ার্ডে ৬৭ জন প্রার্থী মনোনয়নপ্রত্র গ্রহণ করেছেন এবং জমাও দিয়েছেন ৬৭ জন। সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৩১ প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেও জমা দিয়েছেন ২২৬ জন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, স্থানীয় এই নির্বাচন দলীয় প্রতীকে হওয়ায় দিনভর উৎসবের আমেজ ছিল নির্বাচন কার্যালয়ের সামনে। প্রার্থী এবং সমর্থকরা জনেজনে আসছিলেন। কোন কোন প্রার্থী দলবল নিয়েই এসেছেন। তবে কোন প্রার্থীই কারো বিরুদ্ধে নির্বাচনের আচরণ বিধি ভঙের অভিযোগ করেননি।

নির্বাচন কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্র সরকার বলেন, আমরা প্রার্থী এবং প্রার্থীর পক্ষের লোকজনদের কড়া নজরে রেখেছি যেন কেউ নির্বাচনের আচরণ বিধি ভঙ্গ করতে না পারে। আমরা অনেক আগেই আচরণ বিধির বিষয়ে প্রচারপত্র বিলি করেছি।

আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী বর্তমান মেয়র সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সম্মান তিনি রক্ষা করতে চান। তিনি বলেন, আমি সিটি করপোরেশনের প্রথম মেয়র। ব্যাপক উন্নয়ন করেছি, ফোর লেন করেছি, ফুটপাত দখলমুক্ত করেছি। রাস্তাঘাটের উন্নয়ন, ড্রেন নির্মাণসহ নগরবাসীর চাহিদা মত কাজ করেছি। তাই আমি জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী।

বিএনপির মনোনীত প্রার্থী কাওসার জামান বাবলা বলেন, বর্তমান মেয়র নগরবাসীর সেবা করতে পারেননি। মানুষ আওয়ামী লীগের দুঃশাসন থেকে মুক্তি চায়। তাই তারা বিএনপির প্রার্থীকে ভোট দেবে। তিনি নির্বাচিত হবেন বলেও শতভাগ আশাবাদী।

রংপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইফুর রহমান সাইফ বলেন, সকাল থেকে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন ছিল। কোন প্রকার সমস্যা ছাড়াই প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

(ঢাকাটাইমস/২২নভেম্বর/আরআই/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত