বলিউডের কিপটে তারকারা

বিনোদন ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ১৩:০১ | প্রকাশিত : ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ১০:৩৮

ধরুন, আপনি বন্ধুদের সঙ্গে বাইরে খেতে গেলেন। সেই দলে এমন এক-দুজন তো নিশ্চয়ই থাকেন, যারা পারতপক্ষে পার্সে হাত ঠেকান না। এমন নয় যে তাদের রোজগার কম। কিন্তু খরচ করতে তাঁদের বড্ড বাধে।

বলিউডের সেলিব্রেটিদের মধ্যেও এমন কয়েকজন আছেন। পেছনে যাদের সবাই কিপটে বলে ডাকেন। বিলাসিতায় গা-ভাসানো এহেন সেলেবদের দেখে আপনি কি ভাবতে পারেন, আপনার সেই কিপটে বন্ধুটির মতো এরাও খরচ এড়িয়ে চলেন। এমনকী, বডিগার্ড বা মেকআপ ম্যানকেও মাসের বেতনটা দিতে ভুলে যান!

কাজের মেয়েকে ঠিকমতো বেতন দেন না শ্রীদেবী

শুরুটা শ্রীদেবীকে দিয়ে। তখন তার সঙ্গে সিনেমার যোগাযোগ ক্ষীণ। টুকটাক অনুষ্ঠানে দেখা যেত। তার দুই মেয়ে জাহ্নবী ও  খুশি বেশ ছোট। খুশি-জাহ্নবীর দেখভালের জন্য যাকে রাখা হয়েছিল, তাঁকে যে কোনো অনুষ্ঠানে দেখা গেলেই নাকি খুব খিটখিটে মেজাজে পাওয়া যেত। শোনা যায়, একবার মিডিয়ার সামনে ক্ষোভ উগরে দিয়ে তিনি জানান, মালকিন ঠিক মতো বেতন দেন না! প্রযোজক বনি কাপূরের স্ত্রী, এক সময়ের বলিউডের এক নম্বর নায়িকা এমনটা করতে পারেন নাকি? ‘এরা কোনো ‘ল’ মানে না, তাই এদের নাম ললনা!’

সঙ্গে কোনো পার্সই রাখেন না কারিনা-কারিশমা

এই দলেই পড়েন কাপূর সিস্টার্সও। তাঁরা নাকি সঙ্গে কোনো পার্স ক্যারি করেন না! বছর পাঁচ-সাতেক আগে একবার নাকি সুনীল শেট্টির স্ত্রী মানা শেট্টি ডিজাইনার গারমেন্টের এক চ্যারিটি এগজিবিশন অর্গানাইজ করেছিলেন। চাকচিক্য বাড়াতে সেখানে অন্য তারকাদের সঙ্গে হাজির ছিলেন কারিশমাও। সেখানে তিনি কয়েকটি জিনিস পছন্দ করে, ব্যাগে ভরে যখন গুটিগুটি পায়ে সেখান থেকে বেরিয়ে আসছেন, তখন দামের কথা বলা হলে তিনি নাকি বিনা সংকোচে বলে দেন, তিনি পার্স ক্যারি করেন না! যাহ বাবা!

অন্যদিকে তার বোন কারিনা যতই নবাব-গৃহিণী হোন, তিনি যে ‘কঞ্জুস’ নিজেই স্বীকার করেছিলেন এক টিভি শোয়ে এসে। বলেছিলেন, মালাইকা আর অমৃতার সঙ্গে বেরোলে কখনও টাকা নিয়ে বেরোন না। কারণ ওঁরা কারিনার বাড়িতে এলেই খাইখাই করেন!

মেকআপ আর্টিস্টের পারিশ্রমিক দিতেন না শিল্পা শেট্টি

খরচা না করার সুখ্যাতি এক সময় শিল্পা শেট্টিরও ছিল বলে শোনা যায়। অবশ্য সেটা বিবাহপূর্ব শিল্পা। সে সময় তিনি নাকি বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যেতেন এক মেকআপ আর্টিস্টের কাছে মেকআপ সেরে। তার জন্য সে বেচারার পারিশ্রমিক চাওয়া ছিল বারণ। শর্ত থাকত, শিল্পা যে ছবিতে অভিনয় করবেন, সেখানেও নাকি সে মেকআপ করার সুযোগ পাবে। তার পর সে পাওনাগন্ডা বুঝে নেবে প্রযোজকের কাছ থেকে। শিল্পার টাকাও বাঁচল, আবার মেকআপ আর্টিস্টও খুশ! এখন কিন্তু তাঁকে এমন বদনাম কেউ দিতে পারবে না। ধনী ব্যবসায়ী পত্নী মিসেস শিল্পা শেট্টি কুন্দ্রার আঙুলের হীরকখণ্ডের দ্যুতিতে পুরনো দিনের সে সব ঘটনা অন্ধকারে বিলীন!

বেতন না পেয়ে চাকরি ছেড়েছিলেন মালাইকার সহকারী

কিপটেমির স্বভাব আছে সালমান খানের ছোট ভাই আরবাজ খানের প্রাক্তন স্ত্রী আইটেম গার্ল মালাইকা অরোরারও। মালকিনের কাছ থেকে ঠিক মতো বেতন না পাওয়ায় ও খিটখিটে মেজাজের কারণে নাকি চাকরি ছেড়ে দিয়েছিলেন তার সহকারী।

অটোর ভাড়া দেন না কপিল শর্মা

কিপটেমির দৌড়ে বেশ এগিয়ে আছেন কমেডি কিং কপিল শর্মাও। তিনি নাকি মাঝেমধ্যেই স্টুডিওতে আসতেন অটোতে করে। কিন্তু ভাড়া দিতেন না বলে শোনা যায়। না-না, অটোওয়ালাও ছেড়ে দিতে চাইতেন না। কিন্তু কপিল বলতেন, ‘আমি কপিল শর্মা, চেনো না!’

বেতন বাকি রাখেন করণ জোহারও

পরিচালক করণ জোহারের প্রোডাকশন হাউস নিয়েও বহু কথা শোনা যায়। মাস গেলে  নাকি বেতন পান না অনেকেই। বিশেষ করে যে সব বিগ বাজেটের ছবি ফ্লপ করেছে, তার সঙ্গে যুক্ত বহু কর্মী নাকি এখনও কাঁদেন টাকা না পাওয়ার দুঃখে।

তবে ভাববেন না যেন ইন্ডাস্ট্রির সবাই এ রকম। এখানে সালমান খান, রণবীর সিং, রানি মুখার্জী, দীপিকা পাড়ুকোন ও বরুণ ধাওয়ানের মতো দিলদরিয়া অভিনেতারাও আছেন। যেখানে হাতের পাঁচ আঙুলই সমান নয়, সেখানে এত বড় ইন্ডাস্ট্রিতে মানুষে মানুষে ভেদ তো থাকবেই।

ঢাকাটাইমস/২৩নভেম্বর/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত