প্রধান বিচারপতির পদ বেশিদিন খালি থাকবে না: আইনমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ১৫:২৬

প্রধান বিচারপতির পদ বেশিদিন খালি থাকবে না বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। বলেছেন, ‘এটা (প্রধান বিচারপতি নিয়োগ) নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি করার কোনো দরকার নেই। এর কারণ হচ্ছে রাষ্ট্রপতি নিশ্চয়ই এই পদটি বেশিদিন খালি রাখবেন না।’

বৃহস্পতিবার বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে বিচারকদের এক প্রশিক্ষণ কর্মশালার আলোচনা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন। অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ এবং সমপর্যায়ের বিচারকদের জন্য এ প্রশিক্ষণ কোর্সের আয়োজন করা হয়।

গত ২ অক্টোবর থেকে ছুটিতে থাকা প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা গত ১০ নভেম্বর সিঙ্গাপুর হাইকমিশনারের মাধ্যমে রাষ্ট্রপতির কাছে পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দেন। এরপর তিনি তার মেয়ের কাছে কানাডা চলে যান। এর আগে গত ২ অক্টোবর থেকে ছুটিতে থাকা প্রধান বিচারপতি ১৩ অক্টোবর অস্ট্রেলিয়ায় যান তার বড় মেয়ের কাছে বেড়াতে।

সংবিধানের ৯৭নং অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, প্রধান বিচারপতির পদ শূন্য হইলে কিংবা অনুপস্থিতি, অসুস্থতা বা অন্য কোনো কারণে প্রধান বিচারপতি তাঁহার দায়িত্বপালনে অসমর্থ বলিয়া রাষ্ট্রপতির নিকট সন্তোষজনকভাবে প্রতীয়মান হইলে ক্ষেত্রমতো অন্য কোনো ব্যক্তি অনুরূপ পদে যোগদান না করা পর্যন্ত কিংবা প্রধান বিচারপতি স্বীয় কার্যভার পুনরায় গ্রহণ না করা পর্যন্ত আপিল বিভাগের অন্যান্য বিচারকের মধ্যে যিনি কর্মে প্রবীণতম, তিনি অনুরূপ কার্যভার পালন করিবেন।

প্রধান বিচারপতি নিয়োগ না দিয়ে সুপ্রিম কোর্টে বিচারপতি নিয়োগ দেয়া যাবে কি না জানতে চাইলে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘আপনাদের কথা, বিচারপতিদের শপথ পড়াবেন প্রধান বিচারপতি, প্রধান বিচারপতি নিয়োগ না হওয়া পর্যন্ত বিচারপতি নিয়োগ দেয়া যাবে না। আমাদের সংবিধানের ৯৭ অনুচ্ছেদে অস্থায়ী প্রধান বিচারপতির কথা বলা আছে; যিনি আপিল বিভাগের প্রবীণতম বিচারপতি হবেন, তিনি অস্থায়ী প্রধান বিচারপতি হবেন। ‘সেখানে কিন্তু পরিষ্কারভাবে বাংলায় এ কথা বলা আছে অনুরূপ। প্রধান বিচারপতির অনুরূপ ক্ষমতা প্রয়োগের কথা বলা আছে। অনুরূপ মানে হচ্ছে-প্রধান বিচারপতি যা করতে পারতেন তিনিও তা করবেন।’

এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘একটু পেছনে তাকালে দেখা যাবে, ১৯৯০ সালের ডিসেম্বরে প্রধান বিচারপতি শাহাবুদ্দিন আহমদ কেয়ারটেকারের চিফ অ্যাভাইজর হয়েছিলেন। পরে তিনি রাষ্ট্রপতিও হয়েছিলেন। তখন একজন অ্যাক্টিং চিফ জাস্টিস ছিলেন। তিনি অ্যাপয়েনমেন্টও দিয়েছেন। শপথও পড়িয়েছেন। এটা যে নজির নাই তা না। নজির আছে। অনুরূপ কথার ওপরে জোর দিতে হবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘যিনি এখন অস্থায়ী প্রধান বিচারপতি তিনি কিন্তু একটা শপথ নিয়েছেন, আপিল বিভাগের বিচারপতি হিসেবে। ‘অনুরূপ’ মানে হচ্ছে- চিফ জাস্টিসের সব ক্ষমতা তিনি পালন করতে পারবেন। সেখানে কিন্তু এ ব্যাপারে কোনো বিভাজন করে দেয়া হয়নি যে, তিনি কী করতে পারবেন কী পারবেন না।’

(ঢাকাটাইমস/২৩নভেম্বর/এমএবি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত