দুর্নীতির অভিযোগে বদলি কর্মকর্তা ফিরলেন ডিসি অফিসে

মাদারীপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ২২:০৮ | প্রকাশিত : ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ২১:৫২

পদ্মা সেতু প্রকল্পের জন্য জমি অধিগ্রহণে দুর্নীতির অভিযোগে মামলার পর বদলি হওয়া কর্মকর্তা আবার ফিরেছেন মাদারীপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ভূমি অধিগ্রহণ শাখায়। এ নিয়ে প্রশাসনের কর্মকর্তাদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে।

সেই কর্মকর্তার নাম মো. মহিউদ্দিন। তিনি পদ্মাসেতুর জন্য ভূমি অধিগ্রহণের সময় মাদারীপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের ভূমি অধিগ্রহণ শাখায় সার্ভেয়ার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তখন বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠার পর মহিউদ্দিনের বিরুদ্ধে মামলা হয় মাদারীপুর আদালতে। দুর্নীতি দমন কমিশনও তার বিরুদ্ধে অভিযোগ তদন্ত করেছে। এরপর তাকে সরিয়ে দেয়া হয় মাদারীপুর ভূমি অধিগ্রহণ শাখা থেকে। বদলি করা হয় অন্য জেলায়। সম্প্রতি আবার তদবির করে মহিউদ্দিন বদলি হয়ে এসেছেন মাদারীপুরেই।

মহিউদ্দিনের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ ছিল তার মধ্যে আছে ক্ষতিগ্রস্তদের একজনের বিল তিনি দিয়েছেন অন্যজনকে। সেই ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তি মামলা করেন। আদালত মামলার তদন্তের দায়িত্ব দেয় দুদককে। আর মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা মহিউদ্দিনকে অভিযুক্ত করে প্রতিবেদন দেন আদালতে।

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক কর্মকর্তা বলেছেন, দুর্নীতির অভিযোগে সরিয়ে দেয়া কর্মকর্তা যদি আবার একই স্থানে দায়িত্ব পায় তাহলে স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন উঠবে।

তবে এ ব্যাপারে সার্ভেয়ার মহিউদ্দিনের বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তার ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে সেটি বন্ধ পাওয়া যায়।

এ ব্যাপারে মাদারীপুর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আজাহারুল ইসলাম ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘দুর্নীতির মামলার পর আসামিকে আবার একই শাখায় পোস্টিং দিলে প্রশ্ন উঠতেই পারে। বিষয়টি জেলা প্রশাসকের সাথে আলোচনা করা হবে।’

তাহলে মহিউদ্দিনকে কেন দায়িত্ব দেয়া হয়েছে- এই প্রশ্নে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক বলেন, ‘সেই ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা হয়েছিল কিনা- তা আমার জানা নেই। উপর থেকে যোগদানের নির্দেশ আসলে আমরা সেই নির্দেশ পালন করে থাকি।’

(ঢাকাটাইমস/২৩নভেম্বর/প্রতিনিধি/ডব্লিউবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত