দিনাজপুরে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত

নিজস্ব প্রতিবেদক, দিনাজপুর
 | প্রকাশিত : ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ২৩:৩১

দিনাজপুরে ২য় দিনের মতো অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘর্ট অব্যাহত রয়েছে। হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র এবং মোটর পরিবহন শ্রমিকদের সংঘর্ষের জের ধরে বুধবার রাত থেকে দিনাজপুর জেলায় অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট শুরু হয়।

দিনাজপুর জেলা প্রশাসক আহবানে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এবং দিনাজপুর জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপ ও দিনাজপুর জেলা মোটর পরিবহন  শ্রমিক ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দকে নিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টায় এক সমঝোতা বৈঠকে বসে।

জেলা প্রশাসক মীর খায়রলি আলমের সভাপতিত্বে প্রশাসকের কাঞ্চন মিলনায়তনে বিকাল ৪টা পর্যন্ত আড়াই ঘন্টাব্যাপী রুদ্ধদ্বার বৈঠক সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী দ্বারা আগুনে দেয়ায় দুটি বাসের ক্ষতিপূরণ, শ্রমিকদের মারধরের আইনানুগ বিচারের দাবি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ মেনে না নেয়ায় দিনাজপুরে  অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত রেখেছে দিনাজপুর জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপ ও দিনাজপুর জেলা মোটর পরিবহন  শ্রমিক ইউনিয়ন।

বৈঠক থেকে বেরিয়ে দিনাজপুর মোটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. রফিক জানান, শ্রমিকদের মারধর এবং গাড়ি ভাঙচুরের বিষয়টি বৈঠকে সুস্পষ্টভাবে আলোচনা না করায় তারা বৈঠক থেকে বেরিয়ে এসেছেন।

এ সময় তিনি বলেন, দুই শ্রমিককে মারধরের বিষয়টি এবং বাসে হামলা ও অগ্নিসংযোগের ক্ষতিপূরণ না পাওয়া পর্যন্ত পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে।

দিনাজপুর সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম সেলু জানান, জ্বালিয়ে দেয়া দু’টি গাড়ির ক্ষতিপূরণ এবং সড়কে যান চলাচলের নিরাপত্তা নিশ্চিত না করা পর্যন্ত পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে।

হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. সফিউল আলম জানান, বৈঠকে জেলা প্রশাসক যে প্রস্তাব দিয়েছেন, তার সাথে তিনি একমত পোষণ করেন।

তিনি জানান, তদন্তের মাধ্যমেই প্রকৃত দোষীকে চিহ্নিত করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে হবে।

জেলা প্রশাসকের প্রস্তাব অনুযায়ী ছাত্রদের মহসড়কে অবরোধ তুলে নিতে বলা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

বৈঠক শেষে দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম জানান, ছাত্র-শ্রমিক দ্বন্দ্ব ও বাসে অগ্নিসংযোগের বিষয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটিকে ৩ দিনের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে। তাদের রিপোর্টের ভিত্তিতেই পরবর্তীতে পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

তিনি জানান, মোটর পরিবহন শ্রমিক ও সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপকে তাদের ধর্মঘট প্রত্যাহার এবং হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে থেকে তাদের অবরোধ কর্মসূচি প্রত্যাহার করে নেয়ার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/২৩নভেম্বর/এসএএস/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত