‘মায়াবিনীর’ মায়ার টানে

মো. মাইনউদ্দিন, খাগড়াছড়ি
| আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৮:৪৯ | প্রকাশিত : ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৮:৪৪

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার পানছড়ি উপজেলাধীন লতিবান ইউনিয়নস্থ কংচাইরি পাড়ায় পাহাড়ের মাঝে আছে অসাধারণ প্রাকৃতিক রূপে অপূর্ব সুন্দর একটি পর্যটন কেন্দ্র ‘মায়াবিনীর লেক’। যার কথা হয়ত জানি না আমরা অনেকেই।

পাহাড়ি এলাকার মাঝেই পড়েছে লেকটি। তাই যেমন পরিচ্ছন্ন তেমনি সুন্দর পরিবেশ, আবার নিরাপত্তা নিয়ে কোনো দুশ্চিন্তাও নেই এখানে। খাগড়াছড়ি শহর থেকে এই লেকের দূরত্ব গাড়ি দিয়ে মাত্র ২০ মিনিটের পথ। তাই খাগড়াছড়ি ভ্রমণে এই জায়গাটি বাদ দেয়া যাবে না কোনোভাবেই।

চারিদিকে পাহাড়ের নৈস্বর্গিক সৌন্দর্য, উদার বিশাল আকাশ মনকে এমনিতেই ভরে তোলে নির্মল আনন্দে। শীতকাল হলেও কমতি নেই লেকের পানি। বর্ষাকালে ‘মায়াবিনীর’ লেকে উপচেপড়া পানি আপনাকে শিহরিত করবে। একই সাথে পাহাড় এবং পাহাড়ের গায়ে সূর্যাস্ত আপনার মনকে ভরিয়ে দিতে যথেষ্ট। লেকের পানির স্বচ্ছতা নিঃসন্দেহে মুগ্ধ করবে আপনাকে। লেকের মাঝে রয়েছে একটি সুন্দর দ্বীপ। দ্বীপের মধ্যে আছে পর্যটকদের জন্য একটি দর্শনার্থী বিশ্রামাগার। দ্বীপের মাঝ থেকে চারদিকে তাকালে আপনি ভুলে যাবেন যান্ত্রিক শহরের যত ক্লান্তি, শ্রান্তি। আরও রয়েছে নৌকায় ঘুরে বেড়ানোর ব্যবস্থা।

আপনি চাইলে নৌকায় ঘুরে বেড়াতে পারবেন লেকে। মাছ ধরতে পারবেন। বন্ধুরা মিলে বেড়াতে যেতে পারেন আবার পারিবারিক ভ্রমণের জন্যেও চমৎকার জায়গাটি। একা একা চুপচাপ নিজের সাথে সময় কাটাতে চাইলেও ‘মায়াবিনীর’ লেক মন্দ নয়। মোটকথা, জেলা শহরের খুব কাছেই আপনার সময়টি অসাধরণ কাটবে।

প্রসঙ্গত, পানছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবুল হাশেমের পরিকল্পনায় ও বাস্তবায়নে উপজেলাধীন লতিবানস্থ কংচাইরি পাড়া একতা মৎস্য চাষ সমবায় সমিতির লেককে গত ৭ নভেম্বর জেলা প্রশাসক মো. রাশেদুল ইসলামের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে এই লেককে ‘মায়াবিনীর লেক’ পর্যটন হিসেবে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

কীভাবে যাবেন

খাগড়াছড়ি যেতে পারেন বাসে। খাগড়াছড়ি থেকে সিএনজি অথবা পিকাপ করে যেতে হবে সদর উপজেলার ভাইবোনছড়া বাজার সেখান থেকে কংচাইরি পাড়ায়।

কোথায় থাকবেন

খাগড়াছড়ি শহরে থাকার মতো বিভিন্ন মানের হোটেল রয়েছে। এদের মধ্যে আছে, পর্যটন মোটেল: এটি শহরে ঢুকতেই চেঙ্গী নদী পার হলেই পড়বে। মোটেলের সব কক্ষই দুই বিছানার। যোগাযোগ: ০৩৭১-৬২০৮৪৮৫ । হোটেল ইকো ছড়ি ইন: খাগড়াপুর ক্যান্টর্মেন্ট এর পাশে পাহাড়ি পরিবেশে অবস্থিত। এটি রিসোর্ট টাইপের হোটেল। যোগাযোগ: ০৩৭১-৬২৬২৫ , ৩৭৪৩২২৫। হোটেল শৈল সুবর্ণ: ০৩৭১-৬১৪৩৬, ০১১৯০৭৭৬৮১২। হোটেল জেরিন: ০৩৭১-৬১০৭১। হোটেল লবিয়ত: ০৩৭১-৬১২২০, ০১৫৫৬৫৭৫৭৪৬, ০১১৯৯২৪৪৭৩০। হোটেল শিল্পী: ০৩৭১-৬১৭৯৫। ভাড়া দরদাম করে ঠিক করে নেবেন।

(ঢাকাটাইমস/০৭ডিসেম্বর/প্রতিনিধি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

ফিচার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত