দুর্নীতিবিরোধী সাংবাদিকতায় পুরস্কার পেলেন ৯ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ১৫:২৮

কিছু ব্যক্তি বিশেষ তাদের নিজেদের স্বার্থ রক্ষার জন্য সাংবাদিকদের ওপর নানা ধরনের চাপ সৃষ্টি করে বলেই কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা গণমাধ্যমের স্বাধীনতার ওপর আঘাত হানছে এমন মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. গওহর রিজভী।

বৃহস্পতিবার ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) আয়োজিত ১৯তম দুর্নীতিবিরোধী আন্দোলনে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা বিষয়ক সংলাপ ‘অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কার ২০১৭’ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামানের উপস্থিতিতে নয়জন বিজয়ী সাংবাদিকদের হাতে পুরস্কার হিসেবে এক লাখ টাকা, ক্রেস্ট ও সম্মাননাপত্র তুলে দেয়া হয়। পুরস্কারের জন্য বিবেচিত টিভি প্রতিবেদনে ক্যামেরাপারসনের বিশেষ ভূমিকার জন্য তাদেরকে পুরস্কার হিসেবে ৫০ হাজার টাকা, ক্রেস্ট ও সম্মাননাপত্র দেয়া হয়।

গওহর রিজভী বলেন, ‘দেশে গণমাধ্যমের অবাধ স্বাধীনতা রয়েছে এবং সরকার তাতে কখনো হস্তক্ষেপ করে না। কিন্তু কিছু ব্যক্তি বিশেষ তাদের নিজেদের স্বার্থে নানাভাবে সাংবাদিকদের ওপর চাপ সৃষ্টি করেন। এসব বিচ্ছিন্ন ঘটনা গণমাধ্যমের স্বাধীনতার ওপর আঘাত হানছে।’

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, ‘যে দেশে দুর্নীতি থাকে সে দেশ থেকে কখনো দরিদ্রতা যাবে না। দারিদ্র্য নিরসন করতে হলে দুর্নীতি বন্ধ করতে হবে। এ ক্ষেত্রে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা সমাজের অনিয়ম-দুর্নীতি চিহ্নিত করতে সহায়তা করে থাকে। তাই সাংবাদিকদের মুক্তভাবে কাজ করতে দিতে হবে।’

পুরস্কার পেলেন যারা

প্রিন্ট মিডিয়া স্থানীয় ক্যাটাগরিতে দৈনিক পূর্বাচলের খুলনার স্টাফ রিপোর্টার এইচ এম আলাউদ্দিন, জাতীয় ক্যাটাগরিতে প্রথম আলো পত্রিকার সাভারের স্টাফ রিপোর্টার অরূপ রায়। ইলেকট্রনিক মিডিয়া ক্যাটাগরিতে মাছরাঙা টেলিভিশনের সাংবাদিক বদরুদ্দোজা বাবু ও ক্যামেরা পারসন হিসেবে একই টেলিভিশনের সিনিয়র ক্যামেরা পারসন মেহেদী হাসান সোহাগ পুরস্কার পেয়েছেন।

ইলেকট্রনিক মিডিয়া প্রামাণ্য অনুষ্ঠান ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পেয়েছেন ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের স্টাফ রিপোর্টার মো. সবুজ মাহমুদ, ক্যামেরা পারসন রাকিবুল হাসান ও গোলাম কিবরিয়া, ক্যামেরা পারসন মহসীন মুকুল, কাজী মোহাম্মাদ ইসমাইল, গোলাম কিবরিয়া।

একই ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পেয়েছেন যমুনা টেলিভিশনের স্টাফ রিপোর্টার (বর্তমানে চ্যানেল ২৪-এ কর্মরত) মো. জাহিদ মামর ইসলাম সাদ ও যমুনা টেলিভিশনের ক্যামেরা পারসন তানভীর মিজান।

২০১৭ সালের অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা প্রতিযোগিতার জুড়িবোর্ডে ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. হেলেনা ফেরদৌস, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস, সাপ্তাহিকের সম্পাদক গোলাম মর্তুজা ও সাংবাদিক জুলফিকার মালিক।

(ঢাকাটাইমস/০৭ডিসেম্বর/এসও/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত