সেন্টমার্টিনে আটকা পর্যটকরা ঝুঁকি নিয়ে ফিরছেন

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১০ ডিসেম্বর ২০১৭, ১৮:২০ | প্রকাশিত : ১০ ডিসেম্বর ২০১৭, ১৮:১৮

বৈরী আবহাওয়ার কারণে কক্সবাজারের সেন্টমার্টিনে আটকা পড়া সাত শতাধিক পর্যটকের মধ্যে আড়াইশ জন ঝুঁকি নিয়ে ট্রলারে করে টেকনাফে ফিরেছেন। রবিবার বেলা ১২টার দিকে পাচঁটি কাঠের ট্রলারে করে তারা টেকনাফের কায়ুখখালী ঘাটে এসে পৌঁছান।

সেন্টমার্টিন বোট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আলম জানান, গত শুক্রবার সেন্টমার্টিনে বেড়াতে আসা সাত শতাধিক পর্যটক বৈরী আবহাওয়ার কারণে সেখানে আটকা পড়েন। রবিবার পাঁচটি ট্রলারে করে আড়াইশ জন সেন্টমার্টিন থেকে টেকনাফে ফিরে এসেছেন। তবে তাদের মধ্যে ৪০ জন স্থানীয় অধিবাসী। এখনও আরও সাড়ে চার শতাধিক পর্যটক সেন্টমার্টিনে আটকা রয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে কক্সবাজার আবহাওয়া অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও সহকারী আবহাওয়াবিদ উজ্জ্বল কান্তি পাল বলেন, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট গভীর নিম্নচাপটি এখন দুর্বল হয়ে লঘুচাপে পরিণত হয়েছে। সমুদ্র বন্দরের ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার আশঙ্কায় তিন নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সাগর ও নাফ নদীতে মাছ শিকার ও পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে এবং মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হতে পারে। এখন লঘুচাপটি কক্সবাজার থেকে ৬৭৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে। তবে তিন নম্বর সতর্ক সংকেত বহাল রয়েছে।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জাহিদ হোসেন সিদ্দিক জানান, ঝুঁকি নিয়ে ট্রলারে করে আড়াইশ পর্যটক টেকনাফে ফিরে এসেছেন বলে তিনি শুনেছেন। তবে এভাবে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আর কেউ যাতে ফেরার উদ্যোগ না নেয় সেজন্য পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, সেন্টমার্টিনে আটকে পড়া পর্যটকদের খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে।

পর্যটকদের কাছ থেকে যাতে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করা না হয় সেজন্য হোটেল মালিক কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আবহাওয়া স্বাভাবিক হলে জাহাজ দিয়ে আটকে পড়া পর্যটকদের টেকনাফে ফিরিয়ে আনা হবে বলে জানান ইউএনও।

(ঢাকাটাইমস/১০ডিসেম্বর/জেডএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত