‘বাংলাদেশে উন্নয়নের ম্যাজিক শেখ হাসিনা’

ভোলা প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১১ ডিসেম্বর ২০১৭, ১৭:১৮

পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম বলেছেন, আমাদের উন্নয়নের একটা ম্যাজিক রয়েছে। আর সেই ম্যাজিকের নাম হচ্ছে- শেখ হাসিনা। খালেদা জিয়া যখন ক্ষমতা ছেড়ে যায়, তখন বাংলাদেশ ব্যাংকে মাত্র ৩২ থেকে ৩৩ হাজার কোটি টাকা ছিল। বাংলাদেশকে বাঁচিয়ে রাখার টাকাও ছিল না।  কিন্তু সম্প্রতি এক রিপোর্টে দেখা গেছে- খালেদা জিয়া ও তার পুত্র কোষাগার খালি করে বাংলাদেশ থেকে সরিয়েছে ৪০ হাজার কোটি টাকা। এই হলো খালেদা জিয়া ও জোট সরকার।

সোমবার দুপুরে মনপুরায় ১৯২ কোটি টাকার নদী ভাঙন রোধ প্রকল্পের উদ্বোধন শেষে উপজেলার রামনেওয়াজ নতুন বাজার নাগরিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বিশ্বের অর্থনীতিবিদরা বলছেন- শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আগামী ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত দেশে পরিণত হবে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেলিনা আকতার চৌধুরীর সভাপতিত্বে গণসংবর্ধনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পরিবেশ ও বন উপমন্ত্রী আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব বলেন, আজ মনপুরাবাসীর জন্য ঐতিহাসিক দিন। মনপুরার মানুষ নদী ভাঙনের মুখে হাজার হাজার মানুষ ফসলি জমি ও ঘর-বাড়ি হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে বেড়ির ঢালে ও দুর্গম চরে মানবেতর জীবনযাপন করছে। এই এলাকার মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি, নদী ভাঙন থেকে মনপুরাকে রক্ষা করা। আজ  তাদের সেই দাবি জননেত্রী শেখ হাসিনার কল্যাণে পূরণ হচ্ছে।

তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াত আমলে পানিসম্পদ মন্ত্রী ছিলেন ভোলা-৩ আসনের সংসদ সদস্য মেজর হাফিজ। কিন্তু তখনকার সময়ে এই আসনের এমপি নাজিম উদ্দিন আলম নদী ভাঙন রোধে কোন কাজ করাতে পারেননি। তিনি একজন ব্যর্থ এমপি। তিনি শুধু এই অবহেলিত দ্বীপে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছেন।

এদিকে আ.লীগ ক্ষমতায় আসার পরেই চরফ্যাসন-মনপুরায় ভাঙন রোধে এক হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। এছাড়াও মন্ত্রী গত ৯ বছরের উন্নয়নের ফিরিস্তি তুলে ধরে আগামী নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দাবি করেন।

এছাড়াও উপমন্ত্রী জ্যাকব পানিসম্পদ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদের পূর্বে দেয়া ক্রসড্যামের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের জন্য অনুরোধ করেন।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- মনপুরা উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান শাহরিয়ার চৌধুরী দীপক, সাবেক সহ-সভাপতি ও শিল্পপতি সারেমুল হক হুমায়ুন, শিল্পপতি ফিরোজ হাওলাদার, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি ও উত্তর সাকুচিয়া ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন, দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউপি চেয়ারম্যান অলিউল্লাহ কাজল, মনপুরা ইউপি চেয়ারম্যান আমানত উল্যাহ আলমগীর প্রমুখ।

এসময় আরও ছিলেন- পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান প্রকৌশলী সাজিদুর রহমান, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী জহির উদ্দিন আহমেদ, ভোলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী কায়ছার আলম, উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী নাহিদুজ্জামান খাঁন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সোহাগ হাওলাদার, মনপুরা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলাউদ্দিন হাওলাদার প্রমুখ।

এর পর মন্ত্রীদ্বয় চরফ্যাশনের চর কুকরি-মুকরি আওয়ামী লীগের জনসভায় যোগদান করেন।

(ঢাকাটাইমস/১১ডিসেম্বর/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত