প্রতিবন্ধী পপি, বুদ্ধিমতী পপি

বিনোদন ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১২ ডিসেম্বর ২০১৭, ১২:৩৪ | প্রকাশিত : ১২ ডিসেম্বর ২০১৭, ১০:৩৩

বাংলা চলচ্চিত্রের এক সময়ের সাড়া জাগানো নায়িকা সাদিকা পারভিন পপি। তার সঙ্গে নায়ক শাকিল খানের জুটি দর্শকদের কাছে খুবই সমাদ্রিত ছিল। বেশ কিছু হিট ছবি রয়েছে এ জুটির দখলে। কিন্তু শাকিল খান হুট করেই অভিনয়ে অনিয়মিত হয়ে পড়লে ধস নামে পপির ক্যারিয়ারেও। মাঝখানে শাকিব খান, রিয়াজ ও ফেরদৌসের সঙ্গে জুটি বেধে বেশ কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করে কামব্যাক করেন পপি। কিন্তু গত দুই-তিন বছর আবারও সেই ধসের মধ্যে দিয়েই যাচ্ছে নায়িকার ক্যারিয়ার।

পপি অভিনীত মুক্তিপ্রাপ্ত শেষ ছবি ‘সোনাবন্ধু’। এ ছবিতে তিনি অভিনয় করেছেন ছোট পর্দার অভিনেতা ডি এ তায়েবের বিপরীতে। আরও ছিলেন নায়িকা পরীমনি। গত কোরবানীর ঈদে মুক্তি পায় ছবিটি। কিন্তু দর্শক না পাওয়ায় ফ্লপের তালিকায় নাম ওঠে ছবিটির। দর্শকদের তরফ থেকে অভিযোগ ওঠে, ছবির কাহিনি ও নায়িকা নির্বাচন ভালোই ছিল, কিন্তু নায়কই ডুবিয়েছে ছবিটিকে। যার কারণে সে সময় বেশ হতাশ ছিলেন ‘সোনাবন্ধু’র নায়িকা পপি।

সেই হতাশা কাটাতেই এবার তিনি পর্দায় হাজির হচ্ছেন ভিন্ন রকম এক চরিত্রে। প্রথমবারের মতো কোনো ছবিতে দ্বৈত ভূমিকায় দেখা যাবে দীর্ঘ দেহের অধিকারী এ নায়িকাকে। ছবির নাম ‘টার্ন’। যে ছবিতে একই সঙ্গে প্রতিবন্ধী ও বুদ্ধিমতী তরুণীর চরিত্রে পর্দায় দেখা দেবেন পপি।

ছবিটিতে অভিনয়ের জন্য ইতিমধ্যে চুক্তিবদ্ধও হয়ে গেছেন নায়িকা। ‘টার্ন’ ছবির পরিচালনার চেয়ারে আছেন শহীদুল ইসলাম খান। ছবির কাহিনি ও চিত্রনাট্যও তিনি লিখেছেন। ভিন্ন ধরণের গল্পের এ ছবিটির নির্মাণ প্রস্তুতি প্রায় শেষ পর্যায়ে। দু-তিন সপ্তাহের মধ্যে এর দৃশ্যধারণ শুরু হবে বলে নির্মাতা শহীদুল ইসলামের পক্ষ থেকে জানা গেছে।

এদিকে ‘টার্ন’-কে ক্যারিয়ারের স্বপ্নের ছবি বলে উল্লেখ করেছেন নায়িকা পপি। কারণ হিসেবে তিনি বলেছেন, ‘জীবনে প্রথম কোনো ছবিতে দ্বৈত চরিত্রে অভিনয় করছি। যেখানে একই সঙ্গে প্রতিবন্ধী ও বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন তরুণীর চরিত্রে দেখা যাবে আমাকে। এর আগে এমন কোনো গল্পে অভিনয় করিনি। ‘টার্ন’ হবে আমার অভিনয় ক্যারিয়ারের অন্যতম একটি ছবি। নিজেকে ভাঙার জন্য নানা ধরনের ছবিতে কাজ করেছি। কিন্তু সেসব থেকে 'টার্ন' অনেকটা ব্যতিক্রম হবে বলেই মনে করি।’

অন্যদিকে, ‘সোনাবন্ধু’ ফ্লপ হলেও কিন্তু বসে ছিলেন না পপি। এরই মধ্যে তার অভিনীত একাধিক ছবির শুটিং শেষ হয়েছে। সেগুলোর মধ্যে ‘শর্ট কাটে বড় লোক’, ‘জীবন যন্ত্রণা’ ও ‘দুই ভাইয়ের যুদ্ধ নামের’ তিনটি ছবি রয়েছে মুক্তির অপেক্ষায়। আপাতত সেগুলোর দিকেই নজর নায়িকার।

১৯৯৭ সালে মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ‘কুলি’ ছবির মাধ্যমে রূপালী পর্দায় অভিষেক হয়েছিল পপির। সে ছবিতে তার নায়ক ছিলেন ওমর সানি। ২০ বছরের ক্যারিয়ারে তিনি উপহার দিয়েছেন বেশ কিছু হিট ও ব্যবসাসফল ছবি। অভিনয় দক্ষতা দেখিয়ে তিন বার ঘরে তুলেছেন ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার’। দুই বার জিতেছেন বাচসাস পুরস্কারও।

ঢাকাটাইমস/১২ডিসেম্বর/এএইচ    

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত