বিজয়ের লক্ষ্যের সবক দিলেন শিবির সভাপতি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭, ২১:৩৭ | প্রকাশিত : ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭, ২১:০৮

মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতা করে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর পক্ষে অস্ত্র ধরা জামায়াতের ছাত্র সংগঠন ইসলামী ছাত্র শিবির দাবি করেছে, বিজয়ের লক্ষ্য থেকে দূরে সরে গেছে বাংলাদেশ।

বিজয় দিবসে শনিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই ভিডিও বার্তা প্রকাশ করেন শিবির সভাপতি ইয়াসিন আরাফাত।

মুক্তিযুদ্ধের সময় অবশ্য ইসলামী ছাত্র শিবির বলতে জামায়াতের কোনো ছাত্র সংগঠন ছিল না। তখন সংগঠনটির নাম ছিল ইসলামী ছাত্র সংঘ। আর এই সংগঠনের নেতা-কর্মীরাই গড়ে তুলে খুনি বাহিনী আলবদর। মুক্তিযুদ্ধের শেষভাবে বুদ্ধিজীবী হত্যায় জড়িত ছিল এই বাহিনী। আর বাহিনীর শীর্ষ নেতা মতিউর রহমান নিজামী, আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদ, মীর কাসেম আলীর ফাঁসি কার্যকর হয়েছে।

স্বাধীনতার পর জামায়াতের পাশাপাশি নিষিদ্ধ হয় ইসলামী ছাত্র সংঘ। আর জিয়াউর রহমানের আমলে জামায়াত রাজনীতি করার সুযোগ পাওয়ার পর তার ছাত্র সংগঠন ইসলামী ছাত্র সংঘের বদলে হয় ইসলামী ছাত্র সংঘ।

ভিডিওতে শিবির সভাপতি বলেন, ‘বিজয়ের উদ্দেশ্য ছিল একটি ঐক্যবদ্ধ বাংলাদেশ। বিজয়ের উদ্দেশ্য ছিল ইনসাফপূর্ণ সমাজ প্রতিষ্ঠার। বিজয়ের উদ্দেশ্য ছিল সাম্য এবং শান্তি প্রতিষ্ঠার। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য, আমরা লক্ষ্য করছি বিজয়ের ৪৬ বছর পরেও আমরা সেই কাঙ্ক্ষিত বিজয়ের স্বাদ এখনো অর্জন করতে পারিনি।’

শিবির সভাপতি বলেন, ‘আজকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা, বিভেদের দেয়াল, অপসংস্কৃতি আজকে আমাদের সমাজকে ক্ষতবিক্ষত করে দিয়েছে।’

জাতির এই ‘ক্রান্তিলগ্নে’ ছাত্রসমাজকে বলিষ্ঠ এবং ঐক্যবদ্ধ ভূমিকা পালন করার আহ্বানও জানান স্বাধীনতাবিরোধী জামায়াতের ছাত্র সংগঠনটি।

শিবির সভাপতির পূর্বসূরীরা ১৯৭১ সালে মুক্তিযোদ্ধাদের নিধনের কাজে নিয়োজিত থাকলেও ৪৬ বছর পর এসে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রশংসায়ও মাতলেন শিবির সভাপতি। তিনি বলেন, ‘যাদের ত্যাগের বিনিময়ে একটি স্বাধীন-স্বার্বভৌম একটি ভূখণ্ড পেয়েছি।’

(ঢাকাটাইমস/১৬ডিসেম্বর/এসও/এএকে/ডব্লিউবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত