ধর্ষণের দায় স্বীকার বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ নেতা আরিফের

শরীয়তপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ২০:০১

শরীয়তপুরে ছয় নারীকে ফাঁদে ফেলে ধর্ষণ ও সেসব দৃশ্য গোপনে ভিডিও করে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ ছিল ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত নেতা আরিফ হোসেন হাওলাদারের বিরুদ্ধে। তিনি আদালতে তার দোষ স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন।

শরীয়তপুরের অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম মুজাহিদুল ইসলামের আদালতে বুধবার বিকালে আরিফের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি নথিভুক্ত করা হয়।

মঙ্গলবার বিকালে গোসাইরহাট উপজেলার সাইক্কা সেতু এলাকা থেকে তাকে আটক করেছে শরীয়তপুরের পুলিশ। বুধবার তাকে আদালতে উপস্থাপন করা হয়। আদালতে সে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে রাজি হলে দুপুর ১টার সময় তাকে অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম মুজাহিদুল ইসলামের খাস কামরায় নেয়া হয়। দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সে দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি প্রদান করেন। তাকে বিকাল সাড়ে পাঁচটার সময় বিচারকের খাস কামরা থেকে জেলা কারাগারে নেয়া হয়।

ভেদরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মেহেদি হাসান বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আরিফ পুলিশের কাছে তার দোষ স্বীকার করেছে। তখন তাকে আদালতে হাজির করা হয়। সে বিচারকের কাছে সকল দোষ স্বীকার করেছে। আদালত তার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি নথিভুক্ত করেছেন। আরিফ আমাদের কাছে আরো কিছু তথ্য দিয়েছে। তা পুলিশ যাচাই-বাছাই করছে। সে পুলিশের কাছে তিনজন নারীকে ধর্ষণ ও সেই দৃশ্য ভিডিও করার কথা স্বীকার করেছে। 

এ বিষয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ প্রয়োজন হলে পরবর্তীতে আদালতে আবেদন করা হবে।

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার নারায়ণপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন আরিফ হোসেন হাওলাদার। তিনি ফেরাঙ্গিকান্দি গ্রামের মিন্টু হাওলাদারের ছেলে। স্থানীয় একটি কলেজের স্নাতক শ্রেণির ছাত্র।

ফাঁদে ফেলে ছয় নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। গত ১৫ অক্টেবর ছয় নারীকে ধর্ষণের দৃশ্যর ভিডিও ও ছবি মানুষের হাতে ছড়িয়ে পরে।

১৭ অক্টোবর থেকে স্থানীয় বিভিন্ন মানুষ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে দেন। অভিযোগ পেয়ে ১৯ অক্টোবর ভেদরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ আরিফকে বহিষ্কার করে। বিভিন্ন গনমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় ১১ নভেম্বর জেলা ছাত্রলীগ আরিফকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করে। গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হলে ভুক্তভোগী এক নারী তার বিরুদ্ধে ভেদরগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেন। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণের অভিযোগ এনে মামলাটি করা হয়।

(ঢাকাটাইমস/২৭ডিসেম্বর/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত