১৬তম চলচ্চিত্র উৎসব শুরু

বিনোদন ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, ১১:২২ | প্রকাশিত : ১২ জানুয়ারি ২০১৮, ১৬:০১

‘নান্দনিক চলচ্চিত্র, মননশীল দর্শক, আলোকিত সমাজ’ - স্লোগান নিয়ে ১২ জানুয়ারি শুক্রবার শুরু হয়েছে ১৬তম ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব। এবারের উৎসবে ৬০টি দেশের দুই শতাধিক ছবি প্রদর্শিত হবে। এতে বাংলাদেশের দশটি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রসহ মোট ২০টিরও বেশি চলচ্চিত্র রয়েছে।

রাজধানীর কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তন, জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল ও প্রধান মিলনায়তন, আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ মিলনায়তন, রাশিয়ান কালচার সেন্টার ও স্টার সিনেপ্লেক্সে উৎসবের চলচ্চিত্রগুলো প্রদর্শিত হবে। উৎসব চলবে ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত। উৎসবটি সবার জন্যই উন্মুক্ত থাকবে।

এবারের আসরে উল্লেখযোগ্য অংশগ্রহণকারী দেশের তালিকায় রয়েছে আর্জেন্টিনা, অস্ট্রেলিয়া, পর্তুগাল, চেকরিপাবলিক, মাদাগাস্কার, থাইল্যান্ড, মঙ্গোলিয়া, সার্বিয়া, তুর্কি, স্পেন, জর্ডান, প্যালেস্টাইন ইত্যাদি। এর মধ্যে তুরস্কের নির্মাতা কাজিম ওজের আলোচিত চলচ্চিত্র ‘জার’ ১৬তম উৎসবের উদ্বোধনী চলচ্চিত্র হিসেবে প্রদর্শিত হয়।

শুক্রবার বিকাল চারটায় জাতীয় জাদুঘরের মূল মিলনায়তনে আয়োজন করা হয় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা। একই ভেন্যুতে ২০ আগামী জানুয়ারি হবে সমাপনী অনুষ্ঠান। ওইদিন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সংস্কৃতিমন্ত্রী ও অভিনেতা আসাদুজ্জামান নূর।

এবারের উৎসবে এশিয়ান কম্পিটিশন বিভাগে প্রতিযোগিতা করবে ১৫টি চলচ্চিত্র। পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট আন্তর্জাতিক মানের একটি জুরি বোর্ড উক্ত চলচ্চিত্রগুলির মধ্য থেকে এক বা একাধিক চলচ্চিত্রকে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র বলে ঘোষণা দেবেন।

ফরাসি দুই নারী চলচ্চিত্র নির্মাতার সাতটি ছবি দিয়ে সাজানো হয়েছে রেট্রোস্পেকটিভ বিভাগ। এছাড়া উৎসবের অংশ হিসেবে প্রথমবারের মত থাকছে ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ক্রিটিক অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের আয়োজনে এবং আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র সমালোচক ফেডারেশনের সহযোগিতায় প্রথম এশিয়ান ফিল্ম ক্রিটিকস এসেম্বেলি। এখানে এশিয়া অঞ্চলের সর্বমোট ১২টি দেশ অংশগ্রহণ করবে।

ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রের জন্য পুরস্কার হিসেবে থাকছে এক লাখ টাকাসহ একটি ক্রেস্ট এবং সার্টিফিকেট। এছাড়া শ্রেষ্ঠ অভিনেতা-অভিনেত্রী, শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক এবং শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যের জন্য পুরস্কার তো থাকছেই।

এবারও উৎসবের আয়োজন করেছে রেইনবো ফিল্ম সোসাইটি। ১৯৯২ সাল থেকে দ্বিবার্ষিক পরিকল্পনায় এই জমকালো চলচ্চিত্র উৎসবের আয়োজন করে আসছে প্রতিষ্ঠানটি। পূর্বে দ্বিবার্ষিক পরিকল্পনায় ঢাকা চলচ্চিত্র উৎসব পরিচালিত হলেও গত বছর থেকে উৎসবটি প্রতিবছরই ধারাবাহিকভাবে আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেয় উৎসবের আয়োজক কমিটি।

ঢাকাটাইমস/১২জানুয়ারি/এনআই/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত