মাদ্রাসা শিক্ষকদের অনশন পঞ্চম দিনে, অসুস্থ ৯০ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৩ জানুয়ারি ২০১৮, ১৬:৩৪

তীব্র শীতের মধ্যে টানা পাঁচ দিনের মতো অনশন চালিয়ে যাচ্ছেন স্বতন্ত্র ইতবেদায়ি মাদ্রাসার শিক্ষকরা। খোলা আকাশ ও তীব্র শীতের মধ্যে এখন পর্যন্ত ৯০ জন শিক্ষক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তাদের মধ্যে বেশ কয়েকজনকে চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বাকি অসুস্থ শিক্ষকদের আন্দোলনরত স্থানেই প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

১ জানুয়ারি থেকে স্বতন্ত্র ইতবেদায়ি মাদ্রাসার শিক্ষকরা জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। টানা আট দিন পর্যন্ত অবস্থান কর্মসূচি পালনকালে সরকার থেকে কোনো আশ্বাস না পেয়ে কর্মসূচির নবম দিন থেকে অনশন পালন শুরু করেন শিক্ষকরা।

তীব্র শীত ও খোলা আকাশের নিচে মানবেতর অবস্থায় সময় কাটছে শিক্ষকদের। ক্ষুধা আর শীতে তারা কাতর হয়ে পড়েছেন।

বাংলাদেশ স্বতন্ত্র ইতবেদায়ি মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির মহাসচিব মোখলেসুর রহমান ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘সরকার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতন ভাতা বাড়ালেও আমাদের বেতন ভাতা বাড়ায়নি। বেতন ভাতা বাড়াতে হলে সবারটাই বাড়ানো উচিত। কেউ বাড়তি বেতন পাবে আর কেউ আগের বেতনেই সন্তুষ্ট থাকবে তা তো হয় না।’

অনশনের ব্যপারে তিনি বলেন, ‘আমাদের দাবি বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত আমরা অনশন চালিয়ে যাবো। অনশনের কারণে আমাদের অনেক শিক্ষক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তীব্র শীতের মধ্যে আমরা খোলা আকাশের নিচে অনশন কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছি। প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মতো সমান অধিকার পাওয়াই আমাদের একমাত্র দাবি।’

আন্দোলনরত শিক্ষক আমিনুল হক ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘আমরা আমাদের সংসার ছেড়ে এসেছি ন্যায্য অধিকার পাওয়ার আশায়। যে বেতন পাই তা দিয়ে এই যুগে ঘর সংসার চলে না। এই টাকা দিয়ে না পারি সংসার চালাতে আর না পারি সন্তানদের খরচ যোগাতে।’

সরকারকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘তীব্র শীতের মধ্যে অনশন থাকাটা অনেক বেশি কষ্টের। এখানে অনেক বয়স্ক শিক্ষক আছেন। তারা এই শীতে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। আপনারা আমাদের দিকে একটু হলেও তাকান। আমরা আর পারছি না।’

(ঢাকাটাইমস/১৩জানুয়ারি/এসও/জেবি)

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত