মওদুদ ভাই সঠিক বলেননি: ইনু

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, ১৬:৫৪ | প্রকাশিত : ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, ১৬:৪৭

নির্বাচনকালীন সরকার সংবিধানে নেই বলে বিএনপি নেতা মওদুদ আহমদের বক্তব্য সঠিক নয় বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। তিনি সংবিধানের বিভিন্ন অনুচ্ছেদ ও ধারা উল্লেখ করে মওদুদের যুক্তি খণ্ডন করেছেন।

রবিবার সচিবালয়ে গণমাধ্যমকর্মীদেরকে এ কথা বলেন ইনু। তিনি বলেন, নির্বাচনের সময় সরকার কী করবে সেটি সংবিধান ও গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ আইনে স্পষ্ট করেই বলা আছে। এনিয়ে বিভ্রান্তির সুযোগ নেই। 

গত শুক্রবার জাতির ‍উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানান, সংবিধানের বিধান অনুযায়ী ২০১৮ সালের শেষ দিকে ভোট হবে। আর ভোটের আগে গঠন করা হবে নির্বাচনকালীন সরকার।

নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের দাবিতে আন্দোলনে থাকা বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ পরদিন রাজধানীতে এক আলোচনায় বলেন, প্রধানমন্ত্রী যে নির্বাচনকালীন সরকারের কথা বলেছেন, সেটাও সংবিধানে নেই।

এর জবাবে ইনু বলেন, ‘নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে সংবিধানে কোন অস্পষ্টতা নেই। সংবিধানের অনুচ্ছেদ ৫৬ এর ৪, ৫৭ এর ৩, ৫৮ এর ৩ এবং ৪ ধারায় নির্বাচনের সময় কারা ক্ষমতায় থাকবে সে প্রসঙ্গে পরিস্কারভাবে বলা হয়েছে।’

‘সেখানে পরিস্কার বলা হয়েছে পরবর্তী সরকার অর্থ্যাৎ উত্তরাধীকার নির্ণয় না হওয়া পর্যন্ত আগের সংসদের সংসদ সদস্য থেকে আসা প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রীরাই দায়িত্বে থাকবেন।’ 

‘সুতরাং মওদুদ ভাই যেটা বলেছেন সেটা সঠিক নয়। সংবিধানে এ বিষয়ে পরিস্কার করে বলা হয়েছে। নির্বাচনের অব্যবহিত পূর্বে সরকারে কারা থাকবেন এবং কীভাবে থাকবেন সংবিধান পরিস্কার এখতিয়ার দিয়ে দিয়েছে।’

‘অস্থিরতা তৈরির চক্রান্তে বিএনপি

বিএনপির সংলাপের দাবিতে কালক্ষেপণের নীতি ও অস্থিরতা তৈরির অপকৌশল হিসেবে দেখছেন তথ্যমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, ‘ফখরুল সাহেবের সম্প্রতি বলেছেন সংলাপে যখন ডাকা হবে তখন প্রস্তাবনা দেওয়া হবে। তাহলে সংলাপ কেন ডাকব?’।

‘কেবলমাত্র আগামী নির্বাচন নিয়ে কোন আলোচনার প্রয়োজন থাকতে পারে না। বিএনপির সহায়ক সরকারের প্রস্তাবটি আসলে নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র। তাদের নির্বাচনে না আসার ওসিলা তৈরি করা। একটা অস্বাভাবিক সরকার আনার একটি অপকৌশল মাত্র।’ 

দেশে কোনো সংকট নেই মন্তব্য করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সংকট তৈরি হয় যদি কোন জনগোষ্ঠীকে অধিকার হারা করা হয়। আবার যদি কোন জনগোষ্ঠী প্রচলিত ব্যবস্থার বিরুদ্ধে গণবিদ্রোহ করে অথবা গণতন্ত্র সংকুচিত করার জন্য কোন সাংবিধানিক, প্রশাসনিক ও আইনগত কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়। আর সেটা এখন হচ্ছে না।’  

নির্বাচন নিয়ে কোন অনিশ্চয়তা নেই জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সংবিধান অনুযায়ী যথাসময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য নতুন নির্বাচন কমিশন তৈরি আছে এবং সেই নির্বাচন কমিশন সবাই মেনেও নিয়েছে।’

‘ইতোমধ্যে নির্বাচন কমিশন সব দলের সঙ্গে নির্বাচন পলিসি নিয়ে কথা বলেছে। সেই সংলাপে বিএনপি সরাসরি অংশ নিয়েছে। সেখানে সব দল যেসব প্রস্তাবনা দিয়েছে তা নিয়ে তারা কম্পাইল তৈরি করছে।’

(ঢাকাটাইমস/১৪জানুয়ারি/এমএ/ডব্লিউবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত