অধিভুক্ত সাত কলেজ

শিক্ষার্থীদের আন্দোলন ঠেকাতে ছাত্রলীগ নেতার নির্দেশ

ঢাবি প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০১৮, ১৫:৫২ | প্রকাশিত : ১৫ জানুয়ারি ২০১৮, ১৫:০৬

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সাত কলেজকে অধিভুক্তির সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স। শিক্ষার্থীরা যেন আন্দোলনে যেতে না পারে, সে জন্য হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে নির্দেশও দিয়েছেন তিনি।

ছাত্রলীগ নেতার মতে, শিক্ষার্থীদের আন্দোলন ‘অগ্রহণযোগ্য’ ও ‘অবাঞ্ছনীয়’।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা যখন ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জনের হুমকি দিয়ে নানা কর্মসূচি পালন করছেন তখন ছাত্রলীগ নেতার এই অবস্থান নিয়ে আলোচনা হচ্ছে শিক্ষার্থীদের মধ্যে। অবশ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আখতারুজ্জামানও মনে করছেন, এই আন্দোলন থেকে সরে আসা উচিত শিক্ষার্থীদের। তার মতে, বিষয়টি নিয়ে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে।

অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজকে বাদ দেয়ার দাবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ডাক দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। রবিবার বেলা আড়াইটার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের সামনে  আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা এই কর্মসূচি ঘোষণা করে। আজ সোমবার থেকে এই কর্মসূচি শুরু হওয়ার কথা।

এই পরিস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ মোতাহার হোসেন প্রিন্স ওই ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে বলেন, “ঢাকা বিশ্ববিদ্যালযের শিক্ষার্থীদের  অবগতির জন্য: ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধিভুক্ত মোট ১১১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। আগে ছিল ১০৪ টি আর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নতুন হয়েছে আরো সাতটি। এ সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সকল কার্যক্রম (ভর্তি,ভাইভা, ব্যাংকিং কার্যক্রম) তাদের নিজস্ব ক্যাম্পাসেই পরিচালিত হবে । ঢাবি ক্যাম্পাসে থেকে পরিচালিত হবে না । সুতরাং বিশ্ববিদ্যালয়ের সড়ক অবরোধ করে, ক্লাস পরীক্ষা বন্ধের কথা বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শান্তিপূর্ণ  শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত করে, অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করা এক বারে অবাঞ্ছনীয় ও অগ্রহণযোগ্য।’

বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছাড়াও শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে না যেতে সতর্ক করে দিয়েঠেছ সলিমুল্লাহ মুসলিম হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান তাপসও। আন্দোলনে গেলে হল ছাড়তে হবে বলেও সতর্ক করে দেন তিনি।

হল ছাত্রলীগের ক্লোজড গ্রুপে আবাসিক শিক্ষার্থীদের আন্দোলন যেতে নিষেধ করে দেয়া স্ট্যাটাসে তাপস লেখেন, ‘সাত কলেজকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয়ে যে কর্মসুচি হচ্ছে তাতে কেউ অংশগ্রহণ করবা না, হল থেকে যেন কোন জুনিয়র বের না হয়।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিশ্ববিদ্যালয়ের হল শাখা ছাত্রলীগের  একজন নেতা ঢাকাটাইমস প্রতিবেদককে জানান, ‘প্রিন্স ভাই রবিবার রাতে আমাকে ফোন দিয়ে নির্দেশ দিয়েছেন যাতে হল থেকে কোন শিক্ষার্থী আন্দোলনে অংশগ্রহণ করতে না পারে। ’ 

গত বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে ঢাকা কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ, কবি নজরুল সরকারি কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ, মিরপুর সরকারি বাঙলা কলেজ ও সরকারি তিতুমীর কলেজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হয়।

শিক্ষার্থীদের দাবি, ওই কলেজের শিক্ষার্থীরা নিজেদেরকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হিসেবে পরিচয় দিচ্ছে। তবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বলছে, এমনটি হওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

ঢাকাটাইমস/১৫জানুয়ারি/এনএইচএস/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত