ক্ষমা চেয়ে আপত্তিকর ‘বৈষম্য’ সরালেন নির্মাতা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০১৮, ২০:২৫ | প্রকাশিত : ১৫ জানুয়ারি ২০১৮, ১৭:২০

নারীর প্রতি অবমাননার অভিযোগ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তীব্র সমালোচনার মুখে বৈষম্য নামের বিতর্কিত ‘শর্টফিল্মটি’ ইউটিউব থেকে সরানো হয়েছে। নির্মাতা হায়াত মাহমুদ রাহাত অভিনেতার হয়ে ক্ষমাও চেয়েছেন এমন সিনেমা তৈরির জন্য।

সোমবার ফেসবুকের এক বার্তায় রাহাত লেখেন, আজ বলেছেন “Sabbir Arnob (মূল চরিত্রের অভিনেতা) ভাই এর কথা চিন্তা করে আমরা video টা hide করে দিবো। কারণ সে তো script লিখেনি। কিছু মানুষ বেপারটা আমরা যেভাবে দেখাইতে চাইছি বুজাইতে চাইছি সেটা ওইভাবে নিতে পারেনি। আর সাব্বির ভাই media তে কাজ করেন যেখানে হইতো আমাদের msg টা অন্যভাবে নিয়েছেন। যাই হোক আমি চাই না আমার কারণে সাব্বির ভাই এর কোন problem হোক। আর আমাদের শ্রদ্ধেয় director গণ আপনাদের উপর শ্রদ্ধা ভালোবাসা রেখে বলতে চাই তিনি একজন actor. উনিও আমাদের মত চিন্তা করেছিলেন যে আমাদের msg দেওয়ার intention টা খারাপ ছিল না। তাই তিনি অভিনয় করেছিলেন। তার হয়ে আমি আপনাদের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী। ‘

‘sabbir ভাই আমাকে status দিতে না করেছিলেন তাও দিলাম। কারণ কারো উপকার করতে গিয়েও কিছু মানুষ ভুল বুজছে তাই কারো ক্ষতিও করতে চাই না। ভালো থাকবেন সবাই।’

গত কয়েকদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হায়াত মাহমুদের শর্টফিল্মটি নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হয়। এতে নারীদের পাবলিক প্লেসে সিগারেট খাবার ব্যাপারে আপত্তি জানিয়ে একটি ছেলের উগ্র এবং অযৌক্তিক প্রতিক্রিয়া তুলে ধরা হয়েছে। ভিডিওটিতে নারী পুরুষ বৈষম্যের উদাহরণ হিসেবে পাবলিক বাসের ভেতর নারী ও প্রতিবন্ধীদের জন্য সংরক্ষিত আসনের মতন গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের সমালোচনা করা হয়েছে।

নারী পুরুষের মধ্যে বৈষম্য বলতে এই শর্টফিল্মের নির্মাতা পিছিয়ে পড়া নারীদের সমতা আনয়নে যে বাড়তি সুযোগ দেয়া হয়েছে সেটির তীব্র সমালোচনা করেছেন।

অত্যন্ত পুরুষতান্ত্রিক চেতনায় সমৃদ্ধ এই ভিডিওটি সামাজিক মাধ্যমের গুটিকয়েক মানুষ ছাড়া সবার কাছ থেকে তীব্র প্রতিক্রিয়া পেয়েছে। এধরনের ভিডিও যারা বানায় তাদের নারী নির্যাতনে উষ্কানি দেয়ার অভিযোগে আইনের আওতায় আনার দাবিও তুলেছেন অনেকেই।

কেউ কেউ মন্তব্য করেছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এধরনের ভিডিও ছাড়বার ব্যাপারে আইন থাকা উচিত এবং সেই আইন প্রয়োগ করে এধরনের ভিডিও নির্মাতাদের শাস্তির বিধান থাকা উচিত।

শর্টফিল্মের কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করা সাব্বির অর্নবকে নিয়েও একই রকম দাবি উঠেছে।

নির্মাতা এবং অভিনেতা এধরনের তাদের অপরিপক্ক চিন্তা এই ভিডিওর মাধ্যমে প্রকাশ করে যে বার্তা দিয়েছেন তাতে করে নারীদের প্রতি পুরুষের অবহেলার দৃষ্টিভঙ্গীটাই উঠে এসেছে বলে দাবি করছেন এই ভিডিওর সমালোচকরা।

ঢাকাটাইমস/১৫জানুয়ারি/কেএস/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
Close