টঙ্গীতে অস্ত্রসহ হত্যা মামলার পাঁচ আসামি গ্রেপ্তার

টঙ্গী (গাজীপুর) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৮ জানুয়ারি ২০১৮, ১৯:৪৩

গাজীপুরের টঙ্গীর আলোচিত প্রবাসী দুই চাচাতো ভাই হত্যা মামলার পাঁচ আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। বুধবার রাতে টঙ্গীর দত্তপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানায় র‌্যাব।

গত বছরের ১২ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় টঙ্গীর দত্তপাড়া ইশানাদি সরকার রোডের একটি নির্মাণাধীন ভবনের নিচে মজিবুর রহমানের ছেলে দুবাই ফেরত আক্তার হোসেন (৩৫) ও হাবিবুর রহমানের ছেলে ইতালি ফেরত আসিবুর রহমান মিমকে (২৭) কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় পরদিন নিহত আক্তার হোসেনের বাবা মজিবুর রহমান টঙ্গী থানায় ১৪ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৫/৬ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এরপর থেকে র‌্যাব, পুলিশ ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশের বিশেষ টিম হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের গ্রেপ্তারে মাঠে নামে। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাবের গোয়েন্দা তথ্য মতে হত্যাকাণ্ডে জড়িত পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃতরা হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব কর্মকর্তা সারোয়ার বিন কাসেম বলেন, চাচাত দুই ভাই হত্যা মামলার পাঁচ আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত বুধবার রাতে ১১টার দিকে দত্তপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার  করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, মামলার প্রধান আসামি হুমায়ুন কবির (২৪), ৭নং আসামি জুয়েল শিকদার (১৯), মো. জীবন (২৯), বিল্লাল হোসেন (১৮) ও রবিউল রবু (১৮)।

র‌্যাব কর্মকর্তা জানান, প্রথমে র‌্যাবের একটি দল মামলার প্রধান আসামি হুমায়ুন কবির, জুয়েল শিকদার ও মো. জীবনকে গ্রেপ্তার করে। পরে গ্রেপ্তারকৃতদের তথ্যমতে একই দিন রাতে বনমালা রেলগেট এলাকা থেকে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত বিল্লাল হোসেন ও রবিউল রবুকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের কাছ থেকে দুইটি পিস্তল, একটি ছোড়া, একটি চাপাতি, দুইটি ম্যাগাজিন ও সাত রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, মাদক ব্যবসায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে হত্যাকাণ্ডটি ঘটে। এর মূল পরিকল্পনাকারী ছিলেন হুমায়ুন কবির। বিগত প্রায় ৪/৫ বছর যাবত হুমায়ুনের নেতৃত্বে প্রায় ২০-২৫ জনের একটি চক্র টঙ্গীর দত্তপাড়া ও এরশাদ নগর এলাকা মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করে আসছিল। হুমায়ুনের নেতৃত্বে এই দলটি দত্তপাড়া এরশাদ নগর এলাকার চিহ্নিত দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী গ্রুপ বলে পরিচিত। তারা এই এলাকায় মাদক ব্যবসা থেকে শুরু করে ছিনতাইসহ বিভিন্ন অপকর্মের সঙ্গে জড়িত বলে জানা গেছে।

(ঢাকাটাইমস/১৮জানুয়ারি/আইআর/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত