চুরি যাওয়া লাখ টাকার ফোন উদ্ধার করল পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৯ জানুয়ারি ২০১৮, ২২:০২ | প্রকাশিত : ১৯ জানুয়ারি ২০১৮, ২১:৪৩

আলোকচিত্র শিল্পীর আইফোন সেভেন প্লাস চুরির চার মাস পর উদ্ধার করে দিল পুলিশ। আর এতে সময় লেগেছে মোট চার মাস।

মুনিরা মোর্শেদ মুন্নি নামে ওই আলোকচিত্র শিল্পীর মোবাইল ফোনটি খোয়া গিয়েছিল বসুন্ধরা সিটির সামনে থেকে। তিনি প্লাস্টিকের পণ্য কিনতে দরদাম করার সময় ব্যাগ থেকে দামী মোবাইল ফোনটি চুরি হয়ে যায়।

মুন্নি কাজ করেন দৃকে। তিনি প্রখ্যাত চলচ্চিত্রকার মোরশেদুল ইসলামের স্ত্রী।

বর্তমান সময়ে দরে এই ফোনটির দাম ৯০ হাজার টাকার বেশি।

এরপর রাজধানীর তোজগাঁও থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন মুন্নি। তবে দীর্ঘ সময়েও ফোনটি উদ্ধার না হওয়ায় যখন আশা ছেড়ে দিয়েছেন, তখনই শেরেবাংলানগর থানা থেকে অপ্রত্যাশিত সুখবরটি পান।

মুন্নির ফোনটি উদ্ধার হয়েছে অপর একটি ফোন উদ্ধারের চেষ্টায় গিয়েছে।

শেরেবাংলানগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গণেশ গোপাল বিশ্বাস চুরি যাওয়া অন্য একটি মোবাইল ফোনের খোঁজে বেগুবাড়ী বস্তিতে এক নারীকে আটক করেছিলেন। তার ওই ফোনের সঙ্গে পাওয়া যায় মুন্নির আইফোন সেভেন।

শুক্রবার পুলিশ কর্মকর্তা জি জি বিশ্বাস আইফোনটি তুলে দেন মুন্নির হাতে।

মুন্নি জানান, তার আইফোন সেভেন প্লাসটি ফোনটি খুঁজে পাওয়ার পর এটির মালিক কে সেটি বুঝতে পারছিলেন না শেরেবাংলানগর থানার ওসি। পরে তার ছেলে নটরডেম কলেজের ছাত্র বিপ্লব বিশ্বাস মুন্নির পরিচয় উদঘাটন করে তার নম্বর খুঁজে বের করেন।

মুন্নি জানান, তার মোবাইলের ইমারজেন্সি স্ক্রীনে থাকা মেডিকেল আইডি থেকে নাম বের করে তার সঙ্গে ফেসবুকে যোগাযোগ করেন বিপ্লব বিশ্বাস। পরে পুরো ঘটনা জানতে পারেন বিপ্লবের বাবা জি জি বিশ্বাস।

এরপর শেরেবাংলানগর থানা থেকে যোগাযোগ করা হলে আজ ওসির হাত থেকে মোবাইল ফোনটি নিয়ে আসেন মুন্নি। তিনি ফেসবুকে পুরো ঘটনাটিই তুলে ধরেছেন। বলেন, ‘এই ফোনটায় গত দুই বছরের তোলা সব দুর্লভ ছবি আমার, যেগুলোর জন্য আমি কয়েক রাত ঘুমাতে পারি নাই।... আহা কী আনন্দ আকাশে বাতাসে।’

শেরেবাংলানগর থানার ওসি গণেশ গোপাল বিশ্বাস ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘ওই নারী একজন ফটো সাংবাদিক, তার ফোন আমরা উদ্ধার করে দিয়েছি।’

কীভাবে উদ্ধার করেছেন-এমন প্রশ্নে ওসি বলেন, ‘বিভিন্ন মামলার আসামিকে আমরা আটক করি। তাদের মধ্যে একজনের কাছে এই ফোনটি দেখলে সন্দেহ হয়। পরে আরও জিজ্ঞাসাবাদ করে প্রকৃত মালিককে খুঁজে বের করে তার কাছে ফিরিয়ে দেই।’

মুন্নি জানান, ফোনটি তার স্বামী মোরশেদুল ইসলামকে অফিস থেকে দিয়েছিল। ডুয়েল ক্যামেরায় ভালো ছবি ওঠে বলে তাকে ফোনটি দিয়ে দেন মোরশেদ। আর এই ফোনটি পাওয়ার পর ক্যামেরার বদলে আই ফোন সেভেন প্লাস দিয়েই ছবি তুলতেন মুন্নি।

মুন্নি জানান, চার মাস আগে বসুন্ধরা সিনেপ্লেক্সে সিনেমা ‘খাঁচা’র উদ্বোধনী শো দেখে নীচে নেমে দেখেন আর এফ  এলের মেলা চলছে।

প্লাস্টিকের মোজা নাড়ার ঝুলনী খুব প্রয়োজন ছিল মুন্নির। কিন্তু নিউমার্কেট যাওয়ার সময় নাই বলে এখানেই দরদাম করতে শুরু করেন তিনি। এ সময় কেউ একজন ফোনটি ব্যাগ থেকে নিয়ে যায়।

ঢাকাটাইমস/১৯জানুয়ারি/এএ/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত