সাত কলেজের অধিভুক্তি অপরিকল্পিত: ঢাবি

ঢাবি প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২০ জানুয়ারি ২০১৮, ২১:১০ | প্রকাশিত : ২০ জানুয়ারি ২০১৮, ১৬:৪১

পর্যাপ্ত প্রস্তুতি ছাড়াই ঢাকার সরকারি সাত কলেজকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধিভুক্ত করা হয়েছে বলে স্বীকার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এই সিদ্ধান্তকে অপরিকল্পিতও বলেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘পূর্ব প্রস্তুতি ছাড়া অপরিকল্পিতভাবে হঠাৎ করে ঢাকার সাতটি সরকারি কলেজকে অধিভুক্ত প্রতিষ্ঠান হিসেবে গ্রহণের ফলে অসুবিধা সৃষ্টি হয়েছে।’

২০১৭ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হয় ঢাকা কলেজ, ইডেন কলেজ, শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ, কবি নজরুল কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা মহিলা কলেজ, মিরপুর বাঙলা কলেজ ও তিতুমীর কলেজ।

এরপর থেকেই এই কলেজগুলোতে পরীক্ষা, ফল প্রকাশ নিয়ে এক ধরনের অনিশ্চয়তা তৈরি হয়। আর এসব নিয়ে একাধিকবার নানা কর্মসূচিও পালন করেছে কলেজের শিক্ষার্থীরা।

সম্প্রতি আবার অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এই আন্দোলন আবার পরে অন্যত্র মোড় নিয়েছে। কর্মসূচিতে ছাত্রলীগ কর্মীদের বাধা এবং নারী কর্মীদের হয়রানির অভিযোগের পর দায়ী ছাত্রনেতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থার দাবিও জোরাল হয়েছে।

আবার গত বুধবার প্রক্টর অফিস ঘেরাওয়ের সময় তার কার্যালয়ের গেট ভাঙার ঘটনায় ৫০ থেকে ৬০ জন শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে মামলা নিয়েও উত্তপ্ত বিশ্ববিদ্যালয়।

ওদিকে আবার এক বছর আগে দেয়া পরীক্ষার ফল প্রকাশের দাবিতে রাস্তা অবরোধ করে কর্মসূচি পালন করেছে সাত কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের পরীক্ষার্থীরা।

সব মিলিয়ে সাত কলেজকে অধিভুক্তর সিদ্ধান্ত নিয়ে এখন গ্যাড়াকলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

এই প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এই সাত কলেজের কারণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কার্যক্রম কোনোভাবেই প্রভাবিত হবে না।

‘ স্বতন্ত্র লোকবল ও ব্যবস্থাপনা দ্বারা অধিভুক্ত বা উপাদানকল্প শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহের একাডেমিক কার্যক্রম পরিচালিত হবে বিধায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের শিক্ষা ও সামগ্রিক কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হবে না।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনকারী ছাত্রদের অভিযোগ সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচয় ব্যবহার করছে। এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বলেছে, ‘এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো পরিচয়পত্র দেওয়া হবে না; তারা পূর্বের ন্যায় নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে পরিচয়পত্র গ্রহণ করবে।’

সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসন, পরিবহন, স্বাস্থ্যসেবা, পাঠাগার প্রভৃতির কোনোটিই ব্যবহার করার সুযোগ তাদের নেই বলেও জানানো হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে। এতে বলা হয়, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস শুধু এ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচয়পত্রধারী শিক্ষার্থীদের জন্যই উন্মুক্ত।’

সাত কলেজকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অন্তর্ভুক্তির ঘটনায় একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ক্ষতিও হয়ে গেছে। গত বছর ২০ জুলাই পরীক্ষার রুটিনের দাবিতে শাহবাগে শিক্ষার্থীদের সমাবেশে পুলিশের কাঁদানে গ্যাসের শেলে চোখের আলো হারিয়েছেন তিতুমীর কলেজের ছাত্র সিদ্দিকুর রহমান।

এর পর গত অক্টোবরে চতুর্থ বর্ষের ফল প্রকাশের দাবিতে নীলক্ষেত মোড় অবরোধ করে আন্দোলন করে শিক্ষার্থীরা। পরের মাসে অবশ্য প্রকাশ হয় এই ফল।

ঢাকাটাইমস/২০জানুয়ারি/এনএইচএস/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত