কাতার ধর্ম মন্ত্রণালয়ের শীতকালীন ইসলাম প্রশিক্ষণ কোর্স

ঢাকাটাইমস ডেস্ক
 | প্রকাশিত : ২০ জানুয়ারি ২০১৮, ১৮:০১

কাতার ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান আব্দুল্লাহ বিন যায়েদ আল মাহমুদ ইসলামিক কালচারাল সেন্টারের ব্যবস্থাপনায় অনুষ্ঠিত হয়েছে শীতকালীন ইসলাম প্রশিক্ষণ কোর্স  প্রথম পর্ব।

গত ১৯ জানুয়ারি সন্ধ্যায় বিন যায়েদ সেন্টারে (ফানার ভবন) আয়োজিত প্রশিক্ষণ কোর্সের সার্বিক পরিচালনায় ছিলেন কাতার ধর্মমন্ত্রণালয়ের ইমাম-খতিব ও আলনূর কালচারাল সেন্টারের নির্বাহী পরিচালক হাফেজ মাওলানা ইউসুফ নূর।

প্রশিক্ষক হিসেবে অংশ নেন কাতার ধর্ম মন্ত্রণালয়ের ইমাম-খতিব ও শিক্ষক হাফেজ মাওলানা মুস্তাফিজুর রহমান ও হাফেজ মাওলানা নুরুল আমিন।

উপস্থিত ছিলেন আলনূর কালচারাল সেন্টারের শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ বিভাগীয় পরিচালক প্রকৌশলী সালাহ্উদ্দীন, নির্বাহী সদস্য শের আলম ও রাকিবুল ইসলাম।

মহিলা কর্নারের পরিচালনায় ছিলেন মাওলানা মাহমুদা ও হেনা পারভীন প্রমুখ।

মাওলানা মুস্তাফিজুর রহমান ওজু ও তায়াম্মুমের বিধানসংক্রান্ত সারগর্ব আলোচনা পেশ করেন। তিনি বলেন, শীতকালে ওজু ও পবিত্রতার ব্যাপারে অনেককে অবহেলা করতে দেখা যায়। অথচ রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কষ্ট হলেও পরিপূর্ণভাবে ওজু করাকে নাজাতের কারণ হিসেবে বর্ণনা করেছেন।

ইসলামে দাওয়াতের গুরুত্ব বিষয়ক আলোচনায় মাওলানা নুরুল আমিন বলেন, সমাজের সর্বস্তরে ইসলামি শিক্ষা ও দাওয়াত পৌঁছে দেয়ার মাধ্যমে যাবতীয় বিদয়াত ও কুসংস্কার দূর করা সময়ের দাবি। এজন্য প্রয়োজন দীনি ইলম ও উলামা মাশায়েখের সান্নিধ্য।

প্রশ্নোত্তর পর্বে মাওলানা ইউসুফ নূর ঈদে মিলাদুন্নবী, দাড়ি রাখার বিধান, ফরজ নামাজের পর সম্মিলিত দোয়া এবং অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত ও নাতে রাসুল পরিবেশনসহ বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

শীতকালীন ইসলাম প্রশিক্ষণ কোর্স দ্বিতীয় পর্ব অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২ ফেব্রুয়াবি ২০১৮ শুক্রবার সন্ধ্যায় বিন যায়েদ সেন্টারে। এতে বাংলাদেশ কমিউনিটির সদস্যদের সপরিবারে অংশগ্রহণের আবেদন জানিয়েছে সেন্টার কর্তৃপক্ষ।

(ঢাকাটাইমস/২০জানুয়ারি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

প্রবাসের খবর বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত