ইনু-মতিয়ার সঙ্গে বেহেশতেও যাবেন না কাদের সিদ্দিকী

নাটোর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৫ জানুয়ারি ২০১৮, ২০:৪৯ | প্রকাশিত : ২৫ জানুয়ারি ২০১৮, ১৮:২০

জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু এবং সাবেক বাম ও বর্তমানে আওয়ামী লীগ নেত্রী মতিয়া চৌধুরীর সাথে একসঙ্গে বেহেশতেও যেতে চান না আবদুল কাদের সিদ্দিকী। তার দাবি, ইনুর দল বঙ্গবন্ধু হত্যায় জড়িত ছিল।
 
বৃহস্পতিবার নাটোর শহরের কানাইখালীতে দল কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের এক জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে কাদের সিদ্দিকী এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগ আর বঙ্গবন্ধুকে ভালবাসে না দাবি করে জনতা লীগ নেতা বলেন, ‘তারা (আওয়ামী লীগ) ভালোবাসে ক্ষমতা। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এখন আর আওয়ামী লীগ করে না বলেই সেই দলে বঙ্গবন্ধু হত্যার জন্য দায়ী হাসানুল হক ইনু আর বঙ্গবন্ধুর চামড়া দিয়ে জুতার বানানোর শ্লোগান দেয়া মতিয়া চৌধুরীর মতো মন্ত্রী আছে।’

এ সময় জনতা লীগ নেতা বলে, ‘ইনু-মতিয়ারকে নিয়ে একসঙ্গে বেহেশতে যেতে বললেও আমি যাব না।’

আওয়ামী লীগের সঙ্গে সম্পর্ক বর্ণনা করে কাদের সিদ্দকী বলেন, ‘আগে বঙ্গবন্ধু ও আওয়ামী লীগে আত্মীয়তার সম্পর্ক ছিল আর এখন শত্রুতা।’

কাদের সিদ্দিকী বলেন, স্বাধীনতার পরে জাসদ যা হত্যা না করেছে আওয়ামী লীগ নিজেরাই নিজেদের লোককে তার চেয়ে অনেক বেশি হত্যা করেছে।

আ.লীগ জিতলে চুরি পরবেন কাদের সিদ্দিকী

এ সময় সব দলের অংশগ্রহণে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ জিতলে চুরি পরারও ঘোষণা দেন দলটির সাবেক নেতা কাদের সিদ্দিকী।

২০১৪ সালের জাতীয় নির্বাচনের আগেও কাদের সিদ্দিকী বলেছিলেন, আওয়ামী লীগ ৫০টি আসন পেলে তিনি চুরি পরবেন। তবে বিএনপির বর্জন করা সেই নির্বাচনে পরে কাদের সিদ্দিকীও আসেননি। আর চুরি পরার বিষয়ে পরে আর কিছু জানাননি তিনি।

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকতে না পারলে দলটির কী অবস্থা হবে সেটিও স্মরণ করিয়ে দেন জনতা লীগ নেতা। বলেন, ‘এখন তো বিএনপি পালিয়ে আছে, কিন্তু আওয়ামী লীগ পালিয়েও বাঁচবে না। মাত্র ১৩ পার্সেন্ট ভোটে নির্বাচিত হয়ে ক্ষমতায় থাকা শেখ হাসিনার মানায় না।’

নিজ দল আওয়ামী লীগের সঙ্গে কাদের সিদ্দিকীর  সম্পর্কচ্যুতি হয় ১৯৯৯ সালে। ওই সময় ক্ষমতাসীন দল থেকে বহিষ্কার হয়ে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ গড়ে তোলেন তিনি। আর সেই থেকে শেখ হাসিনার কঠোর সমালোচনা করে আসছেন জনাব সিদ্দিকী। সম্প্রতি তিনি এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর বিকল্প ধারা, আ স ম আবদুর রবের জেএসডি ও মাহমুদুর রহমান মান্নার নাগরিক ঐক্য নিয়ে জোট করে আগামী জাতীয় নির্বাচনে অংশ নেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘নাটোরে দলের জন্য গামছার বীজ বপণ করতে এসেছি, এই বীজ থেকেই এক সময় হাজার হাজার গামছার কর্মী সমর্থক তৈরি হবে।’

নাটোর জেলা কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের আহ্বায়ক শহীদুল ইসলাম মুন্সির সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন দলটির কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তালুকদার, কেন্দ্রীয় যুব শ্রমিক জনতা লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুন নবী সোহেল, মুক্তিযোদ্ধা তমসের আলী, সাইফুল ইসলাম, কায়সার জামান খান, এসএম আয়নাল হোসেন প্রমুখ

ঢাকাটাইমস/২৫জানুয়ারি/প্রতিনিধি/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত