ভিআইপির আলাদা লেনের যুক্তি দেখছেন না সড়কমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদন, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৮:৪৮ | প্রকাশিত : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৪:৩৬
ফাইল ছবি

গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি বা ভিআইপিদের চলাচলের জন্য সড়কে আলাদা লেন করতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের প্রস্তাবে কোনো যুক্তি যুক্তি দেখছেন না সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের প্রস্তাব নিয়ে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার পরিপ্রেক্ষিতে রবিবার সচিবালয়ে সাংবাদেকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন মন্ত্রী।

সম্প্রতি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে অ্যাম্বুলেন্স, পুলিশের মতো জরুরি সেবার পাশাপাশি ভিআইপিদের যাতায়াতের জন্য আলাদা লেন করার বিষয়ে ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের প্রস্তাব পাঠানো হয়। গত ৫ ফেব্রুয়ারি মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব শফিউল আলম এমন প্রস্তাব পাঠানোর কথা স্বীকার করেন।

জনাধিক্যের নগরে যাতায়াত এক নিত্য দুর্ভোগের নাম। নিত্যদিন নতুন গাড়ি নামায় কোথাও যেত কতক্ষণ লাগবে, সে বিষয়ে নিশ্চয়তাই দেয়া যাচ্ছে না। এই অবস্থায় কোনো একটি বিশেষ গোষ্ঠীকে সড়কে অগ্রাধিকার বা বাড়তি সুবিধা দেয়ার প্রস্তাবটি মেনে নিতে পারছে না নগরবাসী।

প্রস্তাবটির খবর জানাজানি হওয়ার পর থেকেই সামাজিক মাধ্যমে তীব্র প্রতিক্রিয়া চলছে। তবে প্রস্তাবটিতে পুলিশ, অ্যাম্বুলেন্সের মতো জরুরি সেবা ও ভিআইপিদের জন্য লেনের কথা বলা হলেও গণমাধ্যম ও সামাজিক মাধ্যমে গুরুত্ব পেয়েছে ভিআইপিদের বিষয়টি।

ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষও এই প্রস্তাবের সঙ্গে একমত নয়। সংস্থাটির একজন পদস্থ কর্মকর্তা ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘ঢাকার শহরে সড়কে কি ভিভিআইপিদের জন্য আলাদা লেন করার মতো পর্যাপ্ত জায়গা আছে? তেমনটা নেই। সুতরাং এমন উদ্যোগ বাস্তবসম্মত নয়।’

বিষয়টি নিয়ে সড়ক মন্ত্রীর প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি বলেনম ‘আমার কাছে একটি চিঠি এসেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে। তবে এটা মন্ত্রিপরিষদে উত্থাপিত কোনো বিষয় নয়। আমাদের যথাযথ কর্তৃপক্ষ বিষয়টি দেখবে।’

‘তবে এখানে শুধুমাত্র ভিআইপিদের জন্য আলাদা লেন... আমার মনে হয় না এ ব্যাপারে কোনো যুক্তি আছে। তবে জরুরি সেবা ও অ্যাম্বুলেন্স চলার ব্যাপারে চিন্তা করা যেতে পারে। তবে আমাদের যতটুকু সংকুলান আছে এর মধ্যে আমরা কোন ব্যবস্থা করতে পারবে বলে মনে হয় না।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আর আমি মনে করি আমাদের ভিআইপি মানসিকতার সংস্কৃতি থেকে আমাদের বের হয়ে আসা দরকার। এদেশের মানুষের রাজনীতি করি আমরা। জনগণের কথা আগে ভাবতে হবে।’

‘আমরা আলাদা সুযোগ-সুবিধা নেয়ার জন্য প্রস্তুত নই। আমরা যেহেতু পলিটিক্যাল গভর্নমেন্ট, তাই জনগণের বিষয়টি আমাদেরকে আগে দেখতে হবে।’

ঢাকাটাইমস/১১ফেব্রুয়ারি/এমএম/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত