এলাকার মানুষের জন্য জীবন উৎসর্গ করেছি: দোলন

আলফাডাঙ্গা প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ২২:৫২ | প্রকাশিত : ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ২২:৪১

ফরিদপুর-১ আসনে (আলফাডাঙ্গা-বোয়ালমারী-মধুখালী) আওয়ামী লীগের মনোনয়ন-প্রত্যাশী বাংলাদেশ কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী সদস্য আরিফুর রহমান দোলন বলেছেন, তার  জীবন এলাকার মানুষের জন্য উৎসর্গ করেছেন তিনি। মানুষের ভালোবাসা নিয়ে তিনি বেঁচে থাকতে চান।

আজ বৃহস্পতিবার ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার বেজীডাঙ্গা কাজী আমেনা ওয়াহেদ উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

বংশপরম্পরায় সমাজসেবক পরিবারের সন্তান দোলন ইতিমধ্যে নানা ক্ষেত্রে সমাজ উন্নয়নে ভূমিকা রেখে চলেছেন। তার এই ভূমিকা আরও বড় ও বৃহত্তরে পরিসরে নিতে চান তিনি। এর জন্য সহায়ক হতে পারে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়া।

অনেক জনপ্রতিনিধি সরকারি সব সুবিধা নিলেও জনগণের কোনো সেবা করেন না বলে অভিযোগ করেন দোলন। আলফাডাঙ্গার কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্পের কথা উল্লেখ করে দোলন বলেন, এগুলো যাদের করার কথা ছিল তারা তাতে কোনো ভূমিকা রাখেননি।  

সংসদ সদস্যসহ জনপ্রতিনিধিদের সরকারি সুবিধা ও দায়িত্বের কথা উল্লেখ করে সমাজসেবামূলক প্রতিষ্ঠান কাঞ্চন মুন্সী ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান দোলন বলেন, গত নয় বছরে এখানকার জনপ্রতিনিধি কী করেছেন। শুধু সরকারের থেকে নিয়েছেন। নিতে নিতে আর জনগণকে দেওয়ার অভ্যাস তৈরি হয়নি। যদি জনগণের জন্য কিছুই না করেন তাহলে তাদের আবার নির্বাচিত করব কেন আমরা।’

আগামী নির্বাচনে সংসদ সদস্য প্রার্থী দোলন বলেন, ‘আমার কিছু হারানোর ভয় নাই। কিন্তু তাদের (ওই জনপ্রতিনিধি) ভয় আছে। আবার নির্বাচিত হতে না পারলে সরকারি সুবিধা পাবেন না।’ এ সময় দোলন বলেন, জনগণ চাইলে আরও বেশি মানুষের সেবা করার জন্য, উন্নয়ন করার জন্য এমপি হতে চান তিনি। যদি এমপি নির্বাচিত হন, তাহলে সরকারি একটি ভাতাও নেবেন না বলে ঘোষণা দেন। সেগুলো জনগণের জন্য খরচ করবেন।

এ সময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত সবাই বিপুল করতালি ও উল্লাসধ্বনি দিয়ে তার ঘোষণাকে স্বাগত জানান।

ঢাকাটাইমস ও সাপ্তাহিক এ সময় সম্পাদক বলেন, ‘আমি কিছু নিতে এখানে আসিনি। সড়ক দুর্ঘটনা মৃত্যুর হাত থেকে বেঁচে ফেরার পর ধরে নিয়েছি দ্বিতীয়বার জীবন পেয়েছি। এ জীবন এ এলাকার মানুষের সেবার জন্য উৎসর্গ করেছি। আমি সবার ভালোবাসা নিয়ে বেঁচে থাকতে চাই।’

কাজী আমেনা ওয়াহেদ উচ্চ বিদ্যালয়ের জন্য লেপটপ দেয়ার ঘোষণা দিয়ে দোলন বলেন, এ বিদ্যালয়কে ব্যক্তিগত সহযোগিতার পাশাপাশি সরকারি সুবিধা এনে দেওয়া ও এমপিওভুক্তির চেষ্টা করবেন তিনি।

আলফাডাঙ্গা সদর ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক এ কে এম আহাদুল হাসান আহাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন ফরিদপুর জেলা পরিষদ সদস্য ও জেলা কৃষকলীগের সদস্যসচিব শেখ শহীদুল ইসলাম শহীদ, টগরবন্দ ইউপি চেয়ারম্যান ইমাম হাসান শিপন, গোপালপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও ফরিদপুর জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ইনামুল হাসান, বুড়াইছ ইউপি চেয়ারম্যান মো. জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মনিরুজ্জামান মাসুদ।

(ঢাকাটাইমস/১৫ফেব্রুয়ারি/ইএস/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজপাট বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত