দুই ভাগে বিভক্ত জাবির আ.লীগপন্থী শিক্ষকরা

জাবি প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ২১:৫৫

পূর্বের নির্ধারিত দুটি দাবি থেকে সরে এসে নতুন একটি দাবিকে আশ্রিত করে পূর্ব নির্ধারিত উপাচার্য ভবন অবরোধ কর্মসূচি পালন করেছেন একজন সাবেক উপাচার্যের নেতৃত্বে আ’লীগপন্থী শিক্ষকদের একাংশ।

‘দ্রুত উপাচার্যের প্যানেল নির্বাচনের ব্যবস্থা গ্রহণ’ এবং ‘সিনেট সদস্যদের তলবি সভা’ আহ্বানের দাবিকে সামনে রেখে শরীফ এনামুল কবীরপন্থী শিক্ষকরা সোমবার বেলা ১১টা থেকে ১টা পর্যন্ত উপাচার্যের কার্যালয় ভবন অবরোধের ঘোষণা দিয়েছিলেন। কিন্তু অবরোধ কর্মসূচিতে তারা ‘বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের শিক্ষকদের ভয় প্রর্দশন ও হুমকি প্রদানের প্রতিবাদের কথা উল্লেখ করেছেন।

উপাচার্য প্যানেল নির্বাচন চাওয়া না চাওয়াকে কেন্দ্র করে আ’লীগপন্থী শিক্ষকরা দুভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েছেন। উপাচার্য প্যানেল নির্বাচন দাবি করা পক্ষটি নির্বাচন দাবি না করা পক্ষের বিরুদ্ধে ভয়-ভীতি প্রদর্শন ও হুমকি প্রদানের অভিযোগে অবরোধ কর্মসূচি পালন করছেন।

অপরদিকে, রবিবার একই ব্যানারে সংবাদ সম্মেলন করে সংগঠনটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের পদে থাকা দুই উপ-উপাচার্যের নেতৃত্বের প্রতি অনাস্থা প্রকাশ করেন। তাদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে সংগঠনের ছয় নেতা-কর্মীকে কারণদর্শনোর নোটিশ দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেন শিক্ষকরা। সেইসাথে সংগঠনের ব্যানারে ডাকা আজকের প্রশাসনিক ভবন অবরোধ কর্মসূচির বিরোধিতাও করেছেন।

অবরোধ চলাকালে প্রশাসনিক ভবনে প্রবেশের তিনটি ফটক বন্ধ করে সেগুলোর সামনে ব্যানার ঝুলিয়ে দেয়া হয়। এসময় প্রশাসনিক ভবনের দ্বিতীয় তলায় উপাচার্য তার কার্যালয়ে অবস্থান করছিলেন।

অবরোধে আসা সংগঠনের সহ-সভাপতি নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক মো. লুৎফর রহমান বলেন, সংগঠনের বিরুদ্ধে অভিযোগকারী শিক্ষকরা সংগঠনের গঠনতন্ত্রের বিরুদ্ধে গিয়ে রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট নির্বাচনে অংশ নিয়েছে। উপাচার্য ও তার অনুসারী শিক্ষকরা বেশ কয়েকজন শিক্ষককে ভীতি প্রদর্শন ও হুমকি দিয়েছে। রাজনৈতিক স্বার্থে তারা এসব কাজ করে যাচ্ছে। এ হুমকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের  প্রতিবাদে আমরা অবরোধ কর্মসূচি পালন করছি।

অপরদিকে উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম হুমকি ও ভয় প্রদর্শনের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, আমি কাউকে হুমকি ও ভয় প্রদর্শন করিনি। আমি মনে করি আমার সম্পর্কে সম্পূর্ণ মিথ্যাচার করা হচ্ছে। এটি খুবই অন্যায় এবং আমি এর নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

অবরোধ কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ও সিনেট সদস্য শরীফ এনামুল কবির, শিক্ষক সমিতির সভাপতি ফরিদ আহমদ, সাধারণ সম্পাদক ফরিদ আহমেদ, কেন্দ্রীয় পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অসিত বরণ পাল, গাণিতিক ও পদার্থ বিষয়ক অনুষদের ডিন অজিত কুমার মজুমদার, সিনেট সদস্য পরিসংখ্যান বিভাগের মোহাম্মদ আলমগীর কবির, মীর মোশাররফ হোসেন হলের প্রাধ্যক্ষ শফি মোহাম্মদ তারেক, শহীদ সালাম-বরকত হলের প্রাধ্যক্ষ কবিরুল বাশার, বেগম সুফিয়া কামাল হলের প্রাধ্যক্ষ এস এম বদিয়ার রহমানসহ প্রায় অর্ধশতাধিক শিক্ষক অংশ নেন।

এদিকে সফলভাবে নিজের প্রথম মেয়াদের দায়িত্ব পালন করায় পুনরায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে মনোনীত হয়েছেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম।

(ঢাকাটাইমস/১৯ফেব্রুয়ারি/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিক্ষা এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর