থানায় মাদক বিক্রি, দুই এসআই প্রত্যাহার

কুমিল্লা প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ২২:০২ | প্রকাশিত : ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ২০:০৪
ফাইল ছবি

থানার মালখানা থেকে মাদক বিক্রি ও ডিবি পরিচয়ে পল্লী চিকিৎসককে অপহরণের চেষ্টার অভিযোগে কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার দুই এসআইসহ পাঁচজনকে জেলা পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এছাড়া থানার এক পরিচ্ছন্নকর্মীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ-আল মামুন। এ ঘটনা তদন্তের জন্য তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার মালখানা থেকে সালাহ উদ্দিন নামের এক পরিচ্ছন্নকর্মী সম্প্রতি মাদকদ্রব্য অন্যত্র বিক্রি করেন বলে অভিযোগ উঠে। একটি সংবাদপত্রে ‘থানায় মাদকের হাট’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এ নিয়ে জেলা পুলিশ প্রশাসনে তোলপাড় শুরু হয়।

এদিকে বুধবার রাতে নগরীর গর্জনখোলায় এক পল্লী চিকিৎসকের কাছে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে চাঁদা দাবি করেন কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার দুইজন এএসআই দুলাল ও মনির। চাঁদা না দিলে তারা তাকে অপহরণের চেষ্টা করেন।

কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ-আল মামুন জানান, মাদকের ঘটনায় থানার মালখানার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এসআই আহসান হাবিব, থানার অপারেশন অফিসার এসআই তপন বকশী এবং কনস্টেবল তানভীরকে জেলা পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে। এছাড়া পরিচ্ছন্নতাকর্মী সালাহ উদ্দিনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

অপহরণ চেষ্টার অভিযোগে দুইজন এএসআই দুলাল ও মনিরকে ক্লোজড করা হয়েছে। এছাড়া বিষয়টি তদন্তের জন্য বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) আলমগীর হোসেনকে প্রধান করে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, এএসপি হেডকোয়ার্টার মো. আমিরুল্লাহ ও কোর্ট ইন্সপেক্টর সুব্রত ব্যানার্জী।

(ঢাকাটাইমস/২২ফেব্রুয়ারি/প্রতিনিধি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অপরাধ ও দুর্নীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত