আবু কালামের পা

অনলাইন ডেস্ক
 | প্রকাশিত : ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৫:১৮

ভোরবেলা রাস্তা ফাঁকা। পুরান ঢাকার এই এলাকায় যে গতিতে রিকশা চলার কথা, চলছে তার চেয়ে ধীরে। খেয়াল করলাম, তিনি চালাচ্ছেন এক পায়ে। বেশ কষ্ট করে। ফাগুনের মৃদুমন্দ হাওয়ার ভেতরেও ঘামে তার জামা ভিজে অস্থির।

আবু কালাম গুলিস্তানের ফুটপাথে ফল বিক্রি করতেন। পায়ে লোহা ঢুকে ইনফেকশন এবং তার পরিণতিতে ডান পা কেটে ফেলতে হয়েছে। চিকিৎসা করাতে গিয়ে সহায় সম্বল সবই বিক্রি করেছেন। কিন্তু তারপরও পা বাঁচাতে পারেননি। ব্যবসা করার মতো পুঁজি নেই। স্ত্রী আর দুই সন্তানের মুখে অন্ন তুলে দিতে এক পায়ে ভর করে যুদ্ধে নামেন মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার এই মাঝবয়সী লোক।

ভিক্ষা যে সম্মানের নয়, তা তিনি বোঝেন। অন্যের গলগ্রহ হয়ে বেঁচে থাকাটাও পছন্দ নয়। তাই এক পায়ে রিকশায় প্যাডেল মেরে ঘুরে বেড়ান ঢাকার এ প্রান্ত থেকে ও প্রান্তে। পরিবার নিয়ে থাকেন বুড়িগঙ্গার ওপারে কদমতলিতে।

একটা ব্যাটারিচালিত রিকশা হলে কষ্ট কম হতো। কিন্তু এরকম একটি রিকশা বানাতে খরচ ৫৫ হাজার টাকা। আমারে বেঁচলেও তো এত টাকা হবে না।' বলেন আবু কালাম।

আমি ভাবি, আমার ফেসবুকের ১১০ জন বন্ধু যদি আবু কালামকে ৫০০ টাকা করে দেন, তাতেও তো তার রিকশাটা হয়ে যায়। কিংবা কোনো সাংবাদিক বন্ধু যদি তাকে নিয়ে একটা রিপোর্ট করেন, তাতে কোনো স্বচ্ছল সহৃদয়বান ব্যক্তির নজরে আসা অসম্ভব নয়।

আবু কালামের মতো যোদ্ধাদের জন্য রাষ্ট্র কিছু না করুক; আমরা সাধারণ মানুষ তো পারি। তার মোবাইল নম্বর: 01707781324

আমিন আল রশীদ: সাংবাদিক

লেখকের ফেসবুক থেকে নেয়া

সংবাদটি শেয়ার করুন

ফেসবুক কর্নার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত