বিমান বিধ্বস্তে নিহতদের মরদেহ আসছে সোমবার

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৮ মার্চ ২০১৮, ১৭:০৮ | প্রকাশিত : ১৮ মার্চ ২০১৮, ১৬:৫৮

নেপালের ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস বাংলার বিমান বিধ্বস্তে নিহত বাংলাদেশিদের মধ্যে শনাক্ত হওয়া ১৭ জনের মরদেহ সোমবার দেশে পৌঁছাবে। বিমান বাহিনীর বিমানে মরদেহগুলো ঢাকায় আনা হবে।

নেপালে অবস্থানরত ইউএস বাংলার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ইমরান আসিফ সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘আজ (রবিবার) বিকালে শনাক্ত হওয়া ১৭টি লাশ ও আরও যেগুলো শনাক্ত করা হবে সেগুলোসহ সব মরদেহের গোসল সম্পন্ন করে কফিনে তোলা হবে। নেপালে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসে আগামীকাল (সোমবার) সকাল ৬টায় মরদেহের জানাজা হবে। বিমান বাহিনীর বিমানে করে লাশ দেশে পাঠানো হবে।’

এছাড়া শনাক্ত হওয়া লাশের স্বজনদের ও বাংলাদেশি মেডিকেল টিম ইউএস বাংলার ফ্লাইটে সোমবার ঢাকা ফিরবেন বলে জানান তিনি।

১৭ জনের মধ্যে পাইলট আবিদ সুলতান, কো-পাইলট পৃথুলা রশীদ এবং কেবিন ক্রু খাজা হোসেন মো. শফি রয়েছেন। নিহত যাত্রীদের মধ্যে ফয়সাল আহমেদ, বিলকিস আরা, মোসাম্মৎ আখতারা বেগম, মো. রকিবুল হাসান, সানজিদা হক, মো. হাসান ইমাম, মিনহাজ বিন নাসির, শিশু তামারা প্রিয়ন্ময়ী, মো. মতিউর রহমান, এস এম মাহমুদুর রহমান, তাহিরা তানভীন শশী রেজা, শিশু অনিরুদ্ধ জামান, মো. নুরুজ্জামান ও মো. রফিক উজ জামানের মরদেহ রয়েছে।

উল্লেখ্য বিমান দুর্ঘটনার পরদিনই হতাহত যাত্রীদের স্বজনদের নেপাল নিয়ে যায় ইউএস বাংলা কর্তৃপক্ষ। তবে এতদিন তারা নিহতদের লাশ দেখতে পারেননি। শুক্রবার মরদেহগুলোর ময়নাতদন্ত শেষ হওয়ার পর শনিবার লাশ শনাক্ত শুরু হয়।

প্রসঙ্গত, গত ১২ মার্চ নেপালের ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বেসরকারি বিমান সংস্থা ইউএস বাংলার একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়ে ৫১ জনের প্রাণহানি হয়। ইউএস বাংলার ওই ফ্লাইটে ৬৭ যাত্রী ও চার ক্রুসহ ৭১ জন যাত্রী ছিলেন।

নিহতদের মধ্যে বাংলাদেশের ২৬ জন, নেপালের ২২ জন ও  একজন চীনের। এছাড়া আহতদের মধ্যে ১০ জন বাংলাদেশি, ১২ জন নেপালের ও একজন মালদ্বীপের নাগরিক রয়েছেন। এর মধ্যে শনিবার রাত পর্যন্ত ১৭ বাংলাদেশির মরদেহ শনাক্ত করা গেছে।

১৭ বাংলাদেশি ছাড়াও ওই দুর্ঘটনায় নিহত ১০ নেপালি ও এক চীনা নাগরিকের লাশ শনাক্ত হয়েছে বলে বাংলাদেশ দূতাবাস জানিয়েছে।

ঢাকাটাইমস/১৮ মার্চ/এনআই/ডিএম

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত