নেপালে বিমান দুর্ঘটনা

আহত শাহিন বার্ন ইউনিটের ভিআইপি কেবিনে

প্রকাশ | ১৮ মার্চ ২০১৮, ১৮:৩৩

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস

নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় আহত শাহিন ব্যাপারীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রবিবার বিকাল সোয়া পাঁচটার দিকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের ষষ্ঠ তলার ভিআইপি কেবিনে ভর্তি করা হয়। এ সময় শাহীনকে গ্রহণ করেন ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের সম্মনয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন।

ইউএস বাংলার তত্ত্বাবধানে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিজি-০৭২ নম্বর ফ্লাইটে রবিবার বিকাল ৩টা ২০ মিনিটে শাহীনকে ঢাকায় নিয়ে আসা হয়। শাহিনসহ নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় আহত হয়ে ছয় বাংলাদেশি দেশে ফিরলেন। নেপালের স্থানীয় সময় দুপুর দেড়টায় তিনিসহ অন্য যাত্রীদের বহনকারী ফ্লাইটি ছেড়ে আসে।

এর আগে বাংলাদেশে ফেরা বাকি পাঁচজনই ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন। আহতরা সবাই ভালো আছেন বলে জানিয়েছেন বার্ন ইউনিটের প্রধান ডা. সামন্ত লাল সেন।

ডা. সেন বলেন, “এখন আহতদের যে অবস্থা মেডিকেলের ভাষায় তাকে ‘স্টেবল’ বলে। আমরা কাউকে শঙ্কামুক্ত বলতে পারছি না। একজন রোগী যতক্ষণ পর্যন্ত হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নিয়ে না যান, ততক্ষণ পর্যন্ত শঙ্কামুক্ত বলা যায় না। সবাই স্থিতিশীল আছেন, ভালো আছেন।”

এদিকে বিমান দুর্ঘটনায় আহত যে পাঁচজনকে ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে তাদের মধ্যে শেহরিনের অপারেশন করতে হবে। তার মানসিক অবস্থা আরেকটু স্থিতিশীল হলে অস্ত্রোপচার করা হবে। এছাড়া মেহেদী হাসান ও তার স্ত্রী কামরুন নাহার স্বর্ণা, আলমন নাহার অ্যানিসহ সবাই ভালো আছেন। তবে সবার মধ্যে দুশ্চিন্তা ভর করেছে।

ডা. সেন আরও বলেন, “আহতদের চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ড রবিবার সকালে প্রত্যেক রোগীকে আলাদাভাবে দেখে সিদ্ধান্ত নিয়ে চিকিৎসা শুরু করেছে। মেডিকেলের ভাষায় কনজারভেটিভ ট্রিটমেন্টে তারা ভালো হবেন বলে আশা করছি।” এসময় রোগীদের কাছে কিছু জিজ্ঞেস না করার অনুরোধ জানান ডা. সামন্ত লাল সেন।

ঢাকাটাইমস/১৮ মার্চ/এএ/ডিএম