রুবেল ও সৌম্যর ওভারে যে হিসেব করেছিলেন সাকিব

প্রকাশ | ১৯ মার্চ ২০১৮, ০৮:১৯ | আপডেট: ১৯ মার্চ ২০১৮, ০৮:৩২

ক্রীড়া প্রতিবেদক, কলম্বো, শ্রীলঙ্কা থেকে

 

সর্বনাশা এক ওভারে শেষ করে দিয়েছেন রুবেল। তার এক ওভার থেকে ২২ রান নিয়ে সমীকরণ সহজ করে ফেলে ভারত। বাকি সর্বনাশটা করেন সৌম্য সরকার, শেষ বলটি ইয়ার্কার জাতীয় না দিয়ে সাদামাটা করে।

তারপরেও রুবেল-সৌম্যের পাশেই আছেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। রুবেল কী আরেকটু বুদ্ধি খাটিয়ে বল করতে পারতেন না? সাকিবের উত্তর.‘ সত্যি কথা বলতে কী, রুবেল কিন্তু খুব মিস করেনি। যে জায়গাটায় বল করার কথা ছিল, অল্পের জন্য মিস করেছে। এরকম হতেই পারে। কার্তিক অসাধারণ ব্যাট করেছে। ওই ওভারে প্রথম ২ বলে ১০ দেওয়ার পর হয়ত একটু নার্ভাস হয়ে পড়েছিল। এটা যে কারও হতে পারে। তার পরও শেষের ওভারে সে আমাদের সেরাদের একজন। পরের বার এ রকম পরিস্থিতি হলে আমি রুবেলের হাতেই বল দেব।’

জানালেন, রুবেল এর আগেও এমন পরিস্থিতিতে বল করতে এসে ভালো করেছেন। সেই বিশ্বাস থেকেই রুবেলের হাতে বল তুলে দিয়েছিলেন তিনি। সাকিব বলছিলেন,‘ মুস্তাফিজ সেই অসাধারণ ওভারটি করার পর, ২ ওভারে ওদের ৩৪ দরকার ছিল। রুবেল আজ ছিল তখনও পর্যন্ত আমাদের সেরা বোলার। ৩ ওভার দুর্দান্ত বোলিং করেছিল। মাত্র ১৩ রান দিয়েছিল। ওর ওপর আমার বিশ্বাস ছিল। অনেকবারই শেষের দিকে দলের জন্য কাজটা করে দিয়েছে ও।’

রুবেলকে নিয়ে যে হিসেব করেছিলেন সাকিব, সেটা টিকেনি। কী হিসেব ছিল সাকিবের? তিনি বলেন,‘আমি ভাবছিলাম যে রুবেল বাজে বল করলেও হয়ত ১৫ রান দেবে। শেষ ওভারে সৌম্যর জন্য ২০ রান থাকবে, হয়ত বেশ আত্মবিশ্বাসী থাকবে। এজন্যই রুবেলকে ১৯তম ওভারে এনেছিলাম। আজ হয়নি।’

সৌম্য শেষ বলটা ওভাবে করলেন কেন? তার প্রতি কী কোনো নির্দেশনা ছিল না? সাকিব বলেন,‘আমার দিক থেকে কোনো নির্দেশনা ছিল না। এসব মুহূর্তে আমি মনে করি কিছু না বলাই ভালো। আমি শুধু ওকে বলেছিলাম, একটু সময় নিতে। কারণ তাড়াহুড়ো করলে যেটা করার কথা সেটা করা হয়ে ওঠে না। সময় নিতে বলেছিলাম। আজকে দিনে ওর যে ৩ ওভার, অনেক দিনে অনেকের চার ওভারের চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ছিল।’

সর্বপুরি রুবেল, মোস্তাফিজ, সৌম্যরা যেভাবে বল করেছেন তাতে গার্বিত অধিনায়ক। সাকিব বলেন,‘ সৌম্য এবং মুস্তাফিজের শেষ সময়ের স্পেলই আমাদেরকে ম্যাচে ফিরিয়েছে। রুবেল প্রথম ৩ ওভারে খুব ভালো বল করেছে। সবাই ভালো করেছে। কাউকে দোষ আমি দিতে পারব না। হয়ত দুটি ওভার খারাপ হয়েছে পুরো ম্যাচে, মিরাজের একটি আর রুবেলের ওই এভার। এটা হতেই পারে টি-টোয়েন্টি ম্যাচে। আমি শুধু বলতে পারি, আমি পুরো দলের বোলিং ও ফিল্ডিং নিয়ে গর্বিত।’

(ঢাকাটাইমস/১৮মার্চ/ডিএইচ)