ইউএস বাংলা বিমান দুর্ঘটনা

তিনজনের মরদেহ নিতে অপেক্ষমাণ স্বজনেরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২২ মার্চ ২০১৮, ১৭:২৬

নেপালের ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস বাংলার বিমান দুর্ঘটনায় নিহত অলিফউজ্জামান, নজরুল ইসলাম ও পিয়াস রায়ের মরদেহ বুঝে নিতে স্বজনেরা হযরত শাহজালাল (র.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অপেক্ষা করছেন। বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টার দিকে কাঠমান্ডু থেকে বিমান বাংলাদেশের একটি নিয়মিত ফ্লাইটে মরদেহগুলো ঢাকা পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

তিনজনের মরদেহ গ্রহণ করতে স্বজনেরা বিমানবন্দরের ৮নং গেটে অপেক্ষায় রয়েছেন। ফ্লাইট পৌঁছাতে দেরি হওয়ায় তাদের মধ্যে উৎকণ্ঠাও দেখা গেছে। তবুও একে অপরকে সান্তনা দিচ্ছেন মরদেহগুলো শনাক্ত হয়েছে বলে। এরই মধ্যে প্রস্তুত রাখা হয়েছে লাশবহনের গাড়ি। সরকারের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে মরদেহগুলো স্বজনদের কাছে বুঝিয়ে দেয়া হবে।

এর আগে কাঠমান্ডুতে ইউএস বাংলার বিমান বিধ্বস্তে  নিহত ২৬ বাংলাদেশির মধ্যে ২৩ জনের মরদেহ ঢাকায় এনে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। কিন্তু শনাক্ত না হওয়ায় অলিফউজ্জামান, নজরুল ইসলাম ও পিয়াস রায়ের মরদেহ সেসময় ফেরত আনা সম্ভব হয়নি।

ইউএস বাংলা জানায়, বুধবার শনাক্ত হওয়া বাকি তিন মরদেহের মধ্যে আলিফউজ্জামানের লাশ খুলনায়, মো. নজরুল ইসলামের লাশ রাজশাহী এবং পিয়াস রায়ের লাশ বরিশালে যাবে।

প্রসঙ্গত, নেপালের  ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বাংলাদেশের বেসরকারি বিমান সংস্থা ইউএস বাংলার একটি ফ্লাইট বিধ্বস্ত হলে ৫১ জনের প্রাণহানি হয়। তাদের মধ্যে ২৬ জনই বাংলাদেশি নাগরিক। এছাড়া অপর ১০ বাংলাদেশি গুরুতর আহত হন। নিহতদের মধ্যে মরদেহ শনাক্ত হওয়া ২৩ জনের লাশ সেমাবার (১৯ মার্চ) ঢাকায় এনে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। ইতোমধ্যে তাদের দাফনও সম্পন্ন হয়েছে।

অপরদিকে আহত দশ বাংলাদেশির মধ্যে সাত জনকে দেশে ফিরিয়ে এনে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া চিকিৎসার জন্য দুই জনকে সিঙ্গাপুরে ও একজনকে দিল্লিতে নেয়া হয়েছে।

ঢাকাটাইমস/২২মার্চ/ডিএম

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত