ফ্রান্সে চামড়াজাত পণ্যের প্রদর্শনীতে যাচ্ছে বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২১ এপ্রিল ২০১৮, ২১:২৪

ফ্রান্সে প্রথমবারের মতো আয়োজিত চামড়াজাত পণ্যের প্রদর্শনীতে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ। আগামী ১৭ থেকে ২০ সেপ্টেম্বর ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের লো বুগেত এক্সিবিশন সেন্টারে হবে এ্ই প্রদর্শনী। এতে বাংলাদেশের ৮-১০টি প্রতিষ্ঠান অংশ নেবে বলে আশা করছে আয়োজক প্রতিষ্ঠান।

শনিবার রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান প্রদর্শনীর আয়োজক প্রতিষ্ঠান মেসে ফ্রাঙ্কফুর্টের প্রেসিডেন্ট মাইকেল শেরপে। এসময় মেসে ফ্রাঙ্কফুর্ট বাংলাদেশের সিইও ওমার সালাহউদ্দীন, বাংলাদেশের হেড অফ অপারেশন্স রুমানা আফরোজ উপস্থিত ছিলেন।

মাইকেল শেরপে জানান, তৈরি পোশাক, ফ্যাশন এবং বস্ত্র শিল্পখাতে প্যারিসের বিখ্যাত দুই প্রদর্শনী ‘টেক্সওয়ার্ল্ড’ও ‘অ্যাপারেল সোর্সিং’এর আয়োজক প্রতিষ্ঠান মেসে ফ্রাঙ্কফুর্ট। এবারই প্রথম আমরা চামড়া ও চামড়াজাত পণ্যের প্রদর্শনী ‘লেদারওয়ার্ল্ড প্যারিস’ এর আয়োজন করছি। একই সময় টেক্সওয়ার্ল্ড প্যারিস এর আয়োজনও থাকবে। যেটা ফেব্রিক এবং তৈরি পোশাকের জন্য এখন পর্যন্ত ফ্রান্সের সবচেয়ে বড় প্রদর্শনী।

মাইকেল মাইকেল শেরপে বলেন, চামড়ার উৎসের জন্য এশিয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চল। চায়না চামড়াজাত পণ্যের প্রধান সরবরাহকারী। কিন্তু তাদের নিজস্ব চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় তারা এখন রপ্তানি কমিয়ে দিচ্ছে। এ বাজারটি এখন অন্য দেশগুলো ধরতে পারে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ চামড়া শিল্পে এখন অনেক এগিয়ে, লেদারওয়ার্ল্ডে বাংলাদেশের অংশগ্রহণে এদেশের চামড়া শিল্প আরও এগিয়ে যাবে বলে আমি আশাবাদী।

শেরপে বলেন, ‘বাংলাদেশি কোম্পানিগুলো এ প্রদর্শনীতে অংশ নিয়ে  নতুন পণ্য উদ্ভাবন, বিপণন শুধু নয়, নিত্য নতুন নকশা ও নতুন ফ্যাশন তৈরিতেও উপকৃত হবে।’

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, টেক্সওয়ার্ল্ড ও অ্যাপারেল সোর্সিং বছরে দুইবার অনুষ্ঠিত হয় প্যারিসে। তৈরি পোশাক, ফ্যাশন এবং বস্ত্রশিল্প খাতে একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রদর্শনী এটি। এ প্রদর্শনীতে ফ্রান্স, জার্মানি, যুক্তরাজ্য, স্পেন, তুরস্ক ও ইতালি সহ বিভিন্ন দেশ থেকে ক্রেতারা আসেন। ইউরোপের সবচেয়ে বড় এ প্রদর্শনীতে বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ অংশগ্রহণ রয়েছে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, মেসে ফ্রাঙ্কফুর্ট গ্রুপের নেটওয়ার্কে প্রায় ২৯টি সাবসিডিয়ারি এবং প্রায় ৫৭ জন আন্তর্জাতিক সেলস পার্টনার আছে। বিশ্বের ৫০টিরও বেশি স্থানে এখন পর্যন্ত ইভেন্টের আয়োজন করেছে মেসে ফ্রাঙ্কফুর্ট। তাদের স্টাফ রয়েছে দুই হাজার ২৯৭ জন। মেসে ফ্রাঙ্কফুর্ট ১৩২টিরও বেশি বাণিজ্যমেলার আয়োজন করে ২০১৫ সাল পর্যন্ত।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) তথ্য অনুযায়ী ২০১৬-১৭ অর্থবছরে দেশের চামড়াজাত পণ্যের রপ্তানি আয় ছিল ১০০ কোটি ডলার, যা আগের বছরের চেয়ে সাড়ে ১৩ শতাংশ বেশি। রপ্তানি খাতকে বৈচিত্র্যময় করতে সরকার চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য খাতকে অগ্রাধিকার দিচ্ছে। এ খাতের জন্য নেওয়া হচ্ছে বিভিন্ন উদ্যোগ।

মেসে ফ্রাঙ্কফুর্ট বাংলাদেশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, শনিবার রাজধানীর এক অভিজাত হোটেলে প্যারিসের শীর্ষস্থানীয় ফ্যাশন ডিজাইনারদের উপস্থাপনায় ট্রেন্ডস অ্যান্ড কালারস অফ ইয়োরোপ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। মেসে ফ্রাঙ্কফুর্ট ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট  মাইকেল শেরপে এবং ফরাসি ডিজাইনার গ্রেগরি লামুদ সেমিনারে অংশ নেন। সেমিনারের প্রধান উদ্দেশ্য সম্পর্কে জানানো হয়, বাংলাদেশি গার্মেন্টস, ফেব্রিক এবং চামড়াজাত পণ্য নির্মাতাদের একই প্ল্যাটফর্মে এনে আলোচনা করা এবং ইউরোপের সর্বশেষ ট্রেন্ড এবং ফ্যাশন সম্পর্কে তাদের সচেতন করে তোলা।

বাংলাদেশ সফরে মাইকেল শেরপে বাংলাদেশের লেদার ফুটওয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সাইফুল ইসলাম, বাণিজ্য  সচিব  শুভাশিস বোস, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) ভাইস চেয়ারম্যান বিজয় ভট্টাচার্য এবং বাংলাদেশ গার্মেন্টস এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনে (বিজিএমইএ)ভাইস প্রেসিডেন্ট (অর্থ) মোহাম্মদ নাসিরের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

(ঢাকাটাইমস/২১এপ্রিল/জেআর/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত