মানিকমিয়া অ্যাভিনিউয়ের সবুজ কেড়ে নিল কালবৈশাখী

সিরাজুম সালেকীন, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২১ এপ্রিল ২০১৮, ২১:৩৮

কালবৈশাখী ঝড়ে রাজধানীর মানিক মিয়া অ্যাভিনিউয়ে রাস্তার দুই ধারের গাছগুলো ভেঙে পড়েছে।

গতকাল সন্ধ্যার পর ও আজ দুপুরে দমকা বাতাসের সাথে ঝড়ো হওয়ার কারণেই মূলত গাছগুলো উপড়ে পড়ে। এই গাছগুলোর বড় ছোট ডাল ছাড়াও মূল গাছ থেকে উপড়ে পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে আজ দুপুরে সিটি করপোরেশনের থেকে সেগুলো সরিয়ে ফেলা হয়।

গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে বেশ কয়েক কিছুক্ষণ ভারী বৃষ্টিপাতের সাথে দমকা হাওয়া শুরু হয়। এ সময় সংসদ ভবনের সামনে ও পাশের মিরপুর সড়কের সোনালু, জারুল, কৃষ্ণচূড়া গাছগুলো ভেঙে ও উপড়ে পড়ে। এতে কিছু সময় যান চলাচলও বন্ধ ছিল। পরে সেগুলো রাস্তার পাশে সরিয়ে রাখা হয়।

আজ শনিবার গাছগুলো শ্রমিক দিয়ে কেটে সরিয়ে ফেলা হয়। এখন সংসদ ভবনে ও মিরপুর সড়কে সবুজের চিহৃ কমে গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী তানভীর ঢাকাটাইমসকে বলেন, আজ শনিবারের ঝড়ের তাণ্ডবে রাস্তার দুইপাশে থাকা সারি সারি গাছগুলো লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে। এর আগে গতকাল গাছের একই অবস্থা হয়েছিল। সংসদের সামনের রাস্তার বিশেষত সড়ক বিভাজকে যেসব গাছ ছিল সেগুলো ভেঙে পড়েছে।

বনবিদ আব্দুল্লাহ আব্রাহাম ঢাকাটাইমসকে জানান, ‘বাংলাদেশে এ ফুলগুলো ফোটে এপ্রিল থেকে জুন মাস পর্যন্ত। সৌন্দর্য বর্ধক গুণ ছাড়াও, এই গাছ উষ্ণ আবহাওয়ায় ছায়া দিতে বিশেষভাবে উপযুক্ত। আর তাই এই গাছগুলো রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে লাগানো হয়েছিল। এখন যে গাছগুলো ভেঙে গেল পরিবেশ ও পাখিদের আভাসস্থল নষ্ট হলো। দেখতে হবে এখন এই ক্ষতি কীভাবে পুষিয়ে উঠা যায়।’

বৈশাখের শেষ দিক থেকে জ্যৈষ্ঠ মাস এই ফুলগুলো রাজধানীবাসীকে সৌরভ দিত। লাল টুকটুকে কৃষ্ণচূড়া ফুলের রাজধানীবাসীর চোখ জুড়াতো। সবুজ পাতার মাঝে যেন জ্বলতো লাল, হলুদ ও সাদা রঙে। এছাড়া বৈশাখের রোদ্দুরের সবটুকু উত্তাপ গায়ে মেখে নিতো রক্তিম পুষ্পরাজি গুলো। কিন্তু এবার রাজধানীরবাসী হয়ত সেই পুষ্পরাজী সৌন্দর্য্য উপভোগ করতে পারবে না।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ বজলুর রশিদ ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘এখন মূলত কালবৈশাখীর সময়। আজও সারা দেশেই দমকা হাওয়া সহ বৃষ্টিপাত হয়েছ। ঢাকায় কাল বৈশাখীর বাতাসের গতি ছিল ঘণ্টায় ৪৬ কিলোমিটার।’

‘বাতাস কম থাকলেও বৃষ্টিপাত হয়েছে বেশি। সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতের রেকর্ড করা হয়েছে শ্রীমঙ্গলে ৫০ মিলিমিটার, টাঙ্গাইলে হয়েছে ৪০ মিলিমিটার, ঢাকায় ১২ মিলিমিটার এবং কিশোরগঞ্জের নিকলীতে ১৫ মিলিমিটার।

ঢাকাটাইমস/২১এপ্রিল/এসএস/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত