‘নারী কর্মীদের নিরাপদ অভিবাসনে আপস নয়’

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৬ এপ্রিল ২০১৮, ১৮:০৪

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি বলেছেন, বিদেশগামী নারী কর্মীদের নিরাপদ অভিবাসন নিশ্চিত কল্পে সরকার কোনও আপস করবে না। বিদেশে কর্মরত নারী কর্মী অধিকার ও কল্যাণ নিশ্চিতকরণে বর্তমান সরকার বদ্ধপরিকর। বিদেশগামী নারী কর্মী কোনও রকম প্রতারণার বা হয়রানি স্বীকার হলে সঙ্গে সঙ্গে তার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় কর্তৃক আয়োজিত ‘টেকসই উন্নয়নে নিরাপদ নারী অভিবাসন’ শীর্ষক এক কর্মশালার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশে দারিদ্র দূরীকরণে বিদেশে নারীর কর্মসংস্থানের ভূমিকা অনস্বীকার্য উল্লেখ করে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী বলেন, ‘রেমিটেন্স অর্জনে নারী কর্মীরা ব্যাপক অবদান রাখছে। তারা যে বিদেশে গিয়ে কাজ করছে সেখানে তাদের অনেক চ্যালেঞ্জ রয়েছে। বাস্তবে যে সকল সমস্যা নারী অভিবাসনে রয়েছে তা সরকার মোকাবেলা করছে। তবে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিবর্গকেও এগিয়ে আসতে হবে।’

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. নমিতা হালদারের সভাপতিত্বে কর্মমালায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (অর্থ ও প্রশাসন) মো. আমিনুল ইসলাম। এছাড়া ‘টেকসই উন্নয়ন ও নিরাপদ নারী অভিবাসন’ বিষয়ে একটি প্রবন্ধ উপস্থাপনা করেন জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর মহাপরিচালক মো. সেলিম রেজা।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সীজের সভাপতি বেনজির আহমেদ, বোয়েসেলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মরণ কুমার চক্রবর্তী, ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালক গাজী মোহাম্মদ জুলহাস, এসডিসির ডেপুটি হেড অব মিশন এবং কো-অপারেশন ডিরেক্টর মিস বিয়াতে এলসাসার, ইউএন উইমেন-এর কান্ট্রি রিপ্রেজেনটেটিভ মিস সকো ইশিকাওয়া এবং জাতীয় মানবাধিকার কমিশন বাংলাদেশ এর স্থায়ী সদস্য মো. নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

ইউএন ঊইমেন-এর সহযোগিতায় কর্মশালায় অংশগ্রহনকারীদের মোট ৬টি দলে বিভক্ত করে কর্মশালাটি পরিচালিত হয়। এতে ৬টি বিষয়ের ওপরে অংশগ্রহণকারীদের মতামত ও সুপারিশ গ্রহণ করা হয়। ৬টি বিষয়ের মধ্যে রয়েছে- নারীদের জন্য প্রশিক্ষণ কর্মসূচি/প্রাক-বহির্গমন প্রশিক্ষণ (পিডিটি), নিয়োগি নৈতিকতা (এথিকাল রিক্রুটমেন্ট), নারী অভিবাসী কর্মীদের জন্য নিরাপদ, সুশৃঙ্খল, নিয়মিত ও দায়িত্বশীল অভিবাসনের জন্য সরকার এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ অংশীদারদের করণীয়, জেন্ডার সংবেদনশীল মানসম্মত কর্মসংস্থানের শর্তাবলী, অভিযোগ ব্যবস্থাপনা এবং নারী অভিবাসী কর্মীদের সামাজিক-অর্থনৈতিক প্রত্যাবাসন।

কর্মশালায় মন্ত্রণালয় ও দপ্তর, বিভিন্ন সংস্থার উর্দ্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ, কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের প্রশিক্ষকবৃন্দ, নাগরিক সমাজের সদস্যবৃন্দ এবং এনজিও প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করে। এছাড়া কর্মশালা উদ্বোধনকালে প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

(ঢাকাটাইমস/২৬এপ্রিল/এমএম/ডিএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত