‘ছাত্রলীগ নেত্রী’র অপকর্মের প্রতিবাদ: ছয় ছাত্রীকে হল ছাড়ার নির্দেশ

ব্যুরো প্রধান, বরিশাল
 | প্রকাশিত : ২৬ এপ্রিল ২০১৮, ২০:২১

বরিশাল সরকারি ব্রজমোহন (বিএম) কলেজের বনমালী গাঙ্গুলী ছাত্রী নিবাসে সাধারণ ছাত্রীদের নির্যাতনকারী এক ছাত্রলীগ নেত্রীর অপকর্মের প্রতিবাদ করার ঘটনায় আন্দোলনকারী ছয় ছাত্রীকে হল ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় হল ছাড়ার নির্দেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কলেজ অধ্যক্ষ মো. শফিকুর রহমান সিকদার। তবে ছাত্রীদের হল ছাড়ার নির্দেশের ফলে মুহূর্তের মধ্যে সাধারণ ছাত্রীদের মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। অনেকে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। কলেজ কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্ত সমালোচনার মুখে পড়েছে  সাধারণ মানুষেরও।

সূত্র মতে, কলেজের বনমালী গাঙ্গুলী ছাত্রী নিবাসের ছাত্রীদের ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে নির্যাতন করতেন ছাত্রলীগ নেত্রী ফারজানা আক্তার ঝুমুর। এছাড়াও অবৈধ কাজে বাধ্য করা ও ইয়াবা ব্যবসাসহ নানা অভিযোগ ছিল তার বিরুদ্ধে। এই রেশ ধরে সাধারণ ছাত্রীরা কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে একাধিকবার অভিযোগ ও স্মারকলিপি প্রদান করেন। শেষবার ২২ এপ্রিল অভিযোগ দেয়ার পর ঝুমুর ওই ছাত্রীদের নানাভাবে শাসানোর এক পর্যায়ে কয়েকজনকে মারধরও করেন। একপর্যায়ে সাধারণ ছাত্রীরা একত্রিত হয়ে ঝুমুরকে গণধোলাই দেন। পরে ঝুমুরের রুমের আসবাবপত্র মূল সড়কে এনে পুড়িয়ে ফেলা হয়। এতে করে মুহূর্তের মধ্যেই বিষয়টি চাউর হয় সকল জায়গায়। এরপরেই ঝুমুরকে হল থেকে বের করে দেয়া হয় এবং পরের দিন ওই ছাত্রীরা আবার কলেজ অধ্যক্ষর কাছে অভিযোগ দেন এবং ঝুমুরকে স্থায়ী বহিষ্কারের দাবি জানান। ঘটনার পরের দিন কলেজ কর্তৃপক্ষ একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন।

বনমালী গাঙ্গুলী ছাত্রী নিবাসের একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে, ছাত্রলীগ নেত্রী ঝুমুরকে হল থেকে বের করে দেয়ার পর সে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে তদবির করতে থাকে তার জন্য। অনেক নেতার কাছে ধন্যা দিয়ে তাদের মাধ্যমে ফোন করান কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে। আর সেই মাধ্যমেই আন্দোলনকারী ছাত্রীদের মধ্যে ছয়জনকে চিহ্নিত করে কলেজ কর্তৃপক্ষ তাদের হল থেকে নেমে যাওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।

জানা গেছে, আন্দোলনকারীদের মধ্যে কলেজের ছাত্রী জান্নাতুল ফেরদৌসি, রহিমা আফরোজ ইভা, ফাতিমা শিমু, শাকিলা, তানজিলা আক্তার মিষ্টি ও শারমিন আক্তারকে হল ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

হল ছাড়ার নির্দেশপ্রাপ্ত ফাতেমা শিমু জানান, তদন্ত করার স্বার্থে হল ছাড়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এছাড়া আমাদের আর কিছুই জানা নেই।

এই বিষয়ে বরিশাল সরকারি বিএম কলেজের অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান সিকদার জানান, শিক্ষক কাউন্সিলের সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে যারা মারামারির ঘটনায় জড়িত তাদের হল ছাড়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ঘটনা তদন্তে যাতে কোনো সমস্যা না হয় এই কারণে তাদের নেমে যেতে বলা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদনের পর পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

(ঢাকাটাইমস/২৬এপ্রিল/টিটি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত