যশোরে ছাত্রদল নেতা পলাশ হত্যায় চার্জ গঠন

যশোর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৬ মে ২০১৮, ২১:১৫

যশোর জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি কবির হোসেন পলাশ হত্যা ও বিস্ফোরক মামলায় বুধবার খুলনা বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এমএ রব হাওলাদারের আদালতে চার্জ গঠন করেছেন। একই সাথে আগামী ২১ মে সাক্ষ্যগ্রহণের দিন ধার্য করা হয়।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী সাকেরিন সুলতানা বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, যশোর শহরের ষষ্টিতলাপাড়ার তরিকুল ইসলাম, চাঁচড়া রায়পাড়ার প্রিন্স ওরফে বিহারী প্রিন্স, পূর্ব বারান্দিপাড়া কবরস্থান রোডের রাজ্জাক ফকির, গাড়িখানা রোডের জাহিদুল ইসলাম ওরফে কালা মানিক, ঘোপ বৌবাজার এলাকার রবিউল শেখ, ঘোপ নওয়াপাড়া রোডের সজল, টুটুল গাজী, বেজপাড়ার টিবি ক্লিনিক এলাকার ফয়সাল গাজী, রেলগেট পশ্চিমপাড়ার শহিদুল ইসলাম খান ওরফে সাইদুল, বাঘারপাড়া উপজেলার বহরমপুর গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে শহরের ষষ্টিতলাপাড়ার ভাড়াটিয়া শহিদুল ইসলাম ও যশোর শহরের চাঁচড়া রায়পাড়া এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী আশা এন্টারপ্রাইজের মালিকের ছেলে আল মাসুদ রানা ওরফে মাসুদের বিরুদ্ধে  চার্জ গঠন করা হয়েছে। এর মধ্যে হত্যার পর থেকে প্রিন্স ওরফে বিহারী প্রিন্স পলাতক রয়েছে। 

প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালের ৯ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় শহরের ঈদগাহ মোড়ে মোটরসাইকেলযোগে আসা সন্ত্রাসীরা পলাশকে গুলি ও বোমার আঘাতে হত্যা করে। এ ঘটনায় ফারহানা ইয়াসমিন ১৩ ডিসেম্বর অজ্ঞাতনামা আসামি করে হত্যা মামলা করেন।

তদন্ত শেষে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের এআই আবুল খায়ের মোল্লা গত ৯ এপ্রিল ১০ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন। 

মামলার বাদী ফারহানা ইয়াসমিন রুমা দাখিলকৃত দুটি চার্জশিটের বিরুদ্ধে ১৩ জুলাই আদালতে নারাজি পিটিশন দাখিল করেন। এর প্রেক্ষিতে বিচারক মামলাটি পুনঃতদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো ইনভেস্টিগেশন যশোরকে নির্দেশ দেন। তদন্ত শেষে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই যশোরের ওসি একেএম ফারুক হোসেন হত্যা পরিকল্পনাকারী মাসুদসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে হত্যা ও বিস্ফোরণের সঙ্গে জড়িত থাকার প্রমাণ পান। এরপর তিনি এ চার্জশিট দাখিল করেন।  

কাস্টমস নিলামকে ঘিরে সৃষ্ট বিরোধের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়। 

(ঢাকাটাইমস/১৬মে/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত