প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা করায় ঘরে আগুন

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোপালগঞ্জ
 | প্রকাশিত : ২০ মে ২০১৮, ২২:১০

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা করায় প্রতিশোধ নিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটানো হয়েছে হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ঘরে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে বলে দাবি করেছেন   ক্ষতিগ্রস্ত খলিল সেখের স্ত্রী রোকেয়া বেগম।

এলাকাবাসী জানায়, কাশিয়ানী উপজেলার সাজাইল ইউনিয়নের বাগঝাপা গ্রামের মো. খলিল সেখের বাড়িতে শনিবার গভীর রাতে ঘোয়াল ঘরসহ দুইটি ঘরে আগুন দেখা যায়। স্থানীয় মানুষ প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টা করেও আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে পারেনি। ফলে আগুনে গোয়াল ঘরসহ দুইটি ঘর, দুইটি গরু, একটা বড় স্যালোমেশিন, অর্ধশত কবুতর (পায়রা) ও ঘরের মালামাল আগুনে পুড়ে সম্পন্ন ভস্মিভূত হয়। এতে প্রায় তিন লাখ টাকার ক্ষতি হয়।

খলিল সেখের স্ত্রী রোকেয়া বেগম বলেন, আমার স্বামী মো. খলিল সেখের সাথে প্রতিবেশী আনছার সেখের বিরোধ হয়। সম্প্রতি আনছারের ভাই-ভাগ্নে ও তার লোকজন আমার ছেলে সুমন সেখকে দিনের বেলায় ঘরের দরজা ভেঙে বাইরে নিয়ে যায় এবং নির্মমভাবে কুপিয়ে আহত করে। এসময় এলাবাসী নীরবে দাঁড়িয়ে দেখে। প্রতিরোধ করতে সাহস পায়নি। পরে পার্শ্ববর্তী খায়েরহাট গ্রামের চম্পা মেম্বার তাকে মারাত্মক আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে কাশিয়ানী হাসপাতালে ভর্তি করেন। তার অবস্থার অবনতি হলে সুমনকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে এবং পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় কাশিয়ানী থানায় একটি মামলা করা হয়।

মামলার পর প্রতিপক্ষের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে আমাদের বাড়িতে আগুন দিয়েছে। এতে আমার গরু কবুতর, মেশিনসহ দুইটি ঘর পুড়ে যায়। এতে আমার প্রায় তিন লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলাকার বেশ কয়েকজন জানান, একটি বিয়ে বাড়িতে খলিল সেখের ছেলে সুমন সেখের সাথে আনসার সেখের বিরোধ বাঁধে। আনসার সেখ এলাকায় প্রভাবশালী। এতে তার অপমান হয়েছে। এরই জেরে এইসব ঘটনা ঘটানো হয়েছে।

কাশিয়ানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আজিজুর রহমান বলেন, আগুন লাগার খবর পেয়ে আমি সেখানে গিয়েছিলাম। আগুন লাগানো বিষয়টি কেউ দেখেনি বা বলতে পারেনি। রাতের আধারে কে বা কারা আগুন দিয়েছে তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ক্ষতিগ্রস্তদের বলা হয়েছে কেউকে সন্দেহ হলে তার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করতে। তবে মারপিটের ঘটনায় মামলা নেয়া হয়েছে। সে মামলার কার্যক্রম অব্যহত রয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/২০মে/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত