ঢাকার নতুন সার্ভিস ‘পানি পার’

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২১ মে ২০১৮, ১৩:০৩
ফাইল ছবি

জাদুর শহর ঢাকায় কি তাহলে নতুন বাহন এসে গেল? তাই তো মনে হচ্ছে! ‘পানি পার’ বলে জোরে হাক দিচ্ছে এর চালক। আসলে অল্প বৃষ্টিতে পানি জমে যাওয়ায় অফিস-স্কুলগামী নগরবাসীদের কাছ থেকে টু পাইস কামিয়ে নিতে এই অভিনব সার্ভিসে নেমেছে পরিশ্রমী রিকশাওয়ালারা।

সোমবার ভোর থেকে তুমুল বৃষ্টি হওয়ায় অন্যান্য দিনের মতোই রাজধানীর অলি-গলি, রাজপথের অনেক জায়গা ময়লা পানি জমে একাকার হয়ে যায়। সকালে ঘুম থেকে উঠে এই রমজানের মাসে কে চায় তার গায়ে বা কাপড়ে ময়লা পানি লাগুক? এরই সুযোগ নিচ্ছে রিকশাওয়ালারা। যেখানে পানি জমে আছে, সেখানে গিয়ে দূরের যাত্রী নিচ্ছে। পাশাপাশি রাস্তার এক পাড় থেকে আরেকপাড়ে নামিয়ে দিতে ১০ থেকে ২০ টাকা নিচ্ছে।

এমনই নতুন এক অভিজ্ঞতা হল আজ গাজী টেলিভিশনের সাংবাদিক ফোরকান আহসানের। নিজের অভিজ্ঞতা বর্ণনায় ফেসবুকে লিখলেন, ‘রাজধানীর নতুন বাহন ‘পানি পার’ আজ আমাকে বড় উপকার করেছে। নিউ মার্কেটের দক্ষিণ রাস্তা আজ সকালের বৃষ্টিতে সয়লাব। রিকসাওয়ালা 'পানি পার' 'পানি পার' বলে কয়েকবারে হাঁক দিয়ে বলল পানি পার দশ টাকা। আমি মনে মনে আলহামদুলিল্লাহ বললাম আর ভাবলাম দশ টাকা কেন, পঞ্চাশ টাকা হলেও তো আমি ওপার যেতে বাধ্য। ভাবি, আল্লাহ হায়াত দিলে এই রাজধানীতে আরও ত্রিশ বছর আমাকে থাকতে হতে পারে’!

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শেখ আদনান ফাহাদ। খুব ভোরে উঠে ঢাকা থেকে সাভার যেতে হয় তাকে। বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে উঠার আগে তাকে একটু হাঁটতে হয়। সকালে বাসা থেকে বের হয়ে দেখেন ময়লা পানিতে ফুটপাত ডুবে আছে। ফোরকানের মতো তিনি এতটা সৌভাগ্যবান নন। কোনো রিকশাওয়ালা এসে ‘পানি পার’ বলে হাঁক দেয়নি। অগত্যা ফাহাদ ময়লা পানিতে হেঁটে গিয়েই বাসে উঠেছেন।

দীর্ঘ সময় ঢাকায় কাটিয়েছেন একই বিভাগের শিক্ষিকা নিশাত পারভেজ। বর্তমানে  জাহাঙ্গীরনগরের সুন্দর ক্যাম্পাসে থাকলেও কিছুদিন আগেও জলাবদ্ধতার শহর ঢাকায় থাকতে হতো তাকে। ঢাকাটাইমসকে তিনি জানিয়েছেন, ঢাকায় থাকাকালে এই ‘পানি পার’ সার্ভিস নিয়েছেন বহুবার। হাঁটু সমান পানি হলে ১০ টাকা আর কোমর সমান পানি হলে ২০ টাকা দিতে হতো বলে জানান নিশাত পারভেজ।     

ঢাকা শহরে জলাবদ্ধতা একটি বড় সমস্যা। অল্প বৃষ্টিতেও ইদানীং ঢাকার অলি-গলি রাজপথ ডুবে যায়। কখনো সাগরে নিম্নচাপ হলে তো কথায় নেই। অবিরাম বৃষ্টিতে ঢাকা শহরে অসহ্য পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। মানুষের বাসা-বাড়িতে, দোকানে পানি ঢুকে অসহনীয় অবস্থা তৈরি করে। ফুটপাতগুলো ডুবে যায়। সাধারণ মানুষের কষ্ট আরও বেড়ে যায়।

(ঢাকাটাইমস/মে২১/এসএএফ/জেবি) 

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত