খাদ্যে ভেজাল

সারাদেশে ৮২ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২১ মে ২০১৮, ১৯:৫৫ | প্রকাশিত : ২১ মে ২০১৮, ১৮:১৫

খাদ্যপণ্য প্রস্তুত ও বিপননে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়াধীন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর দেশের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে ৮২টি প্রতিষ্ঠানকে  ৪ লাখ ৪৯ হাজার ৫০০টাকা জরিমানা করেছে।

সোমবার সোমবার ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিভিন্ন বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়ের ৩০ জন কর্মকর্তার নেতৃত্বে  নেতৃত্বে ঢাকা মহানগর, রাজশাহী, সাতক্ষীরা, নওগাঁ, রংপুর, বরিশাল, ফেনী, ঝালকাঠি, মাগুরা, গোপালগঞ্জ, ফরিদপুর, দিনাজপুর, কিশোরগঞ্জ, ময়মনসিংহ, নারায়ণগঞ্জ, চুয়াডাঙ্গা, ব্রাহ্মণবাড়ীয়া, কুড়িগ্রাম, বগুড়া, নাটোর, পাবনা, বরগুনা, সিলেট ও নেত্রকোণায় আজ বাজার তদারকি করা হয়।

ঢাকা মহানগরীর বনশ্রী এলাকায় অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্য পণ্য তৈরীর অপরাধে আল কাদেরিয়া রেস্টুরেন্টকে বিশ হাজার টাকা জরিমানা  এবং অবৈধ প্রক্রিয়ায় পানি প্রক্রিয়াকরণের অপরাধে আহা পিওর ড্রিংকিং ওয়াটার নামক পানি কারখানাকে বন্ধ করে দেয়া হয়।

ঢাকা মহানগরীর চকবাজার এলাকায় পণ্যের মোড়কে খুচরা মূল্যের তালিকা লেখা না থাকার অপরাধে ডেইলি শপিং সুপার শপকে চল্লিশ হাজার টাকা, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্যপণ্য তৈরীর অপরাধে মাসালা বাইটস রেস্টুরেন্ট এন্ড কনভেনশন সেন্টারকে বিশ হাজার টাকা এবং মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য বিক্রয়ের অপরাধে মহনচানকে দশ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ঢাকা মহানগরীর রামপুরা এলাকায় পণ্যের মোড়কে খুচরা মূল্যের তালিকা লেখা না থাকার অপরাধে সোনালী ট্রেডার্স ও নিউ বিউটি কর্ণারকে এক হাজার টাকা করে দুই হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়া দেশব্যাপী ২৬টি জেলায় অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্য পণ্য তৈরী, পণ্যের মোড়কে এমআরপি লেখা না থাকা, মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য বা ঔষধ বিক্রয়, মিথ্যা বিজ্ঞাপন দিয়ে ক্রেতা সাধারণকে প্রতারিত করা, ধার্য্যকৃত মূল্যের অধিক মূল্যে পণ্য বিক্রয়, প্রতিশ্রুত পণ্য বা সেবা যথাযথভাবে বিক্রয় বা সরবরাহ না করা, খাদ্য পণ্যে নিষিদ্ধ দ্রব্যের মিশ্রণ, অবহেলা ইত্যাদি দ্বারা সেবা গ্রহীতার অর্থ, স্বাস্থ্য, জীবনহানি ইত্যাদি ঘটানো, পণ্যের মূল্যের তালিকা প্রদর্শন না করার অপরাধে ৭৬টি প্রতিষ্ঠানকে  ৩ লাখ ৫৭ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা  করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয় সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসন, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ান ও জেলা পুলিশ, বাজার কর্মকর্তা, স্যানেটারি ইন্সপেক্টর এবং ক্যাব এসব তদারকি কার্যে সহায়তা করেন। বাজার তদারকির সময় সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে লিফলেট ও প্যাম্পলেট বিতরণ করা হয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/২১মে/জেআর/ডিএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত