মহাশ্মশান ‘দখল’: ক্ষমা চাইলেন আ.লীগ নেতা

প্রতীক ওমর, বগুড়া
 | প্রকাশিত : ২৩ মে ২০১৮, ২১:১৭

হাইকোটের নির্দেশে বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিজুল হক বুধবার বিকালে উপজেলার বানাইল মহাশ্মশানে ব্যানার ধরে জনগণের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। তিন ফুট বাই দুই ফুট মাপের ব্যানারে তিনি লিখেছেন, ‘বানাইল মহাশ্মশানের নিয়ে সভাপতি এবং হিন্দু সম্প্রদায়ের মধ্যে আর কোনো বিরোধ নেই। আমরা একে অপরের সহযোগিতায় সহ-অবস্থান করব এবং শান্তিময় পরিবেশের অঙ্গীকারবদ্ধ।

এর আগে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের শতবর্ষী শ্মশানের জায়গা দখল করে স্থাপনা নির্মাণ চেষ্টার অভিযোগে শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিজুল হককে ভৎর্সনা করেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে ওই অপকর্মের জন্য স্থানীয় জনগণের কাছে ক্ষমা চাওয়ার নির্দেশ দেন আদালত। এ বিষয়ে আগামী রবিবার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে।

অজিজুল হক বুধবার বিকাল ৫টা সময় দিলেও প্রায় সোয়া ঘণ্টা পর শ্মশানস্থলে আসেন।

এদিকে আজিজুল হক জনগণের কাছে ক্ষমা চাইবেন এমন খবর ছড়িয়ে পড়লে বিকাল থেকে সাধারণ মানুষ সনাতন ধর্মের নারী-পুরুষ এবং গণমাধম্যের কর্মীরা শ্মশান স্থলে এসে ভিড় জমান।

ক্ষমা চাওয়ার অনুষ্ঠানে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিজুল হক বলেন, শ্মশান দখল নিয়ে শুরু থেকেই মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করা হয়। কারণ জায়গাটি আমি কিনেছিলাম। পরে জানতে পারি এটি শ্মশানের। তখন চুপ ছিলাম। তিনি বলেন, যা হয়েছে ভুল হয়েছে। এই জায়গা আমার নয়। এখন থেকে এখানে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন যা করার করবে। আমি তাদের সহযোগিতা করব।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, শতবর্ষী বানাইল বারোয়ারি শিব মন্দির এবং শ্মশান সংরক্ষণ ও উন্নয়ন কমিটির সভাপতি শ্রী কৃষ্ণ মোহন্ত, সাধারণ সম্পাদক দুলাল চন্দ্র সরকার।

(ঢাকাটাইমস/২৩মে/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত