মাদকবিরোধী অভিযান

‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৬ দিনে নিহত ৫৯

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৫ মে ২০১৮, ১৩:১১ | প্রকাশিত : ২৫ মে ২০১৮, ১১:৫৬

সারাদেশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মাদকবিরোধী অভিযান চলছেই। অভিযানের অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুক্রবার ভোর পর্যন্ত দেশের সাত জেলায় কথিত বন্দুকযুদ্ধে নয়জন নিহত হয়েছেন।

এর মধ্যে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নেত্রকোণায় দুইজন এবং সাতক্ষীরা, ময়মনসিংহ, ঝিনাইদহ, কুমিল্লা, গাইবান্ধা ও শেরপুরে একজন করে মোট সাতজন নিহত হয়েছেন। আর রাজধানী ঢাকায় র‌্যাবের গুলিতে নিহত হয়েছেন একজন। এই নিয়ে মাদকবিরোধী অভিযানের মধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দেশের বিভিন্ন জেলাল গত ছয় দিনে অন্তত ৫৯ জনের মৃত্যু হলো।

এছাড়া আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মাদকবিরোধী অভিযানের মধ্যে আরও পাঁচ মাদক বিক্রেতার গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ নিয়ে চলমান অভিযানে গত ছয় দিনে মোট ৬৪ জন মাদক বিক্রেতা নিহত হয়।

নিহতরা সবাই মাদক চোরাকারবারে জড়িত ছিল বলে দাবি করছে র‌্যাব ও পুলিশ। কারও কারও বিরুদ্ধে থানায় মাদক আইনে একাধিক মামলাও রয়েছে।

প্রতিটি বন্দুকযুদ্ধের কাহিনি একই রকম। ‘মাদকের কারবারি’কে নিয়ে অভিযানে বের হলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে লক্ষ্য করে গুলি করে তাদের সহযোগীরা। আর গোলাগুলির এক পর্যায়ে নিহত হন সন্দেহভাজন মাদকের কারবারি। কখনও কখনও পুলিশের এক-দুই জন সদস্য আহতও হন। তবে নিহতের স্বজনদের দাবি, ধরে নিয়ে তাদের স্বজনদের হত্যা করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। গতকাল  রাতে বন্দুকযুদ্ধে নিহতদের নিয়ে ঢাকাটাইমস প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:

তেজগাঁও (ঢাকা)

রাজধানীতে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে রাজধানীর তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার বিজি প্রেস হাইস্কুল মাঠে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে কামরুল নামে এক মাদক কারবারি  নিহত হয়।

তিনি ২৪ নম্বর বিডি মহাখালীর দক্ষিণপাড়ার মানিক মিয়ার ছেলে। তার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার উপপরিদর্শক মিজানুর রহমান বলেন, রাত পৌনে একটার দিকে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চলের বিজি প্রেস হাইস্কুল মাঠে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ কামরুল নামের ওই মাদক কারবারি গুরুতর আহত হন। মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাত দেড়টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সাতক্ষীরা

সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলায় বন্দুকযুদ্ধে এক মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি ওয়ান শুটার গান, দুই রাউন্ড গুলি ও ৭০ বোতল ভারতীয় ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে। নিহত ইউনুস আলী দালাল উপজেলার দক্ষিণ ভাদিয়ালি গ্রামের আব্দুল্লাহ দালালের ছেলে।

কলারোয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিপ্লব কুমার নাথ জানান, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত পৌনে দুইটার দিকেতারা রাত পৌনে দুইটার সোনাবাড়িয়া ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর-বড়ালি সীমান্তে দুইদল মাদক বিক্রেতার মধ্যে গোলাগুলি হচ্ছে বলে খবর পান। তাৎক্ষণিক টহল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিতে পাঁচ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। এতে দুইপক্ষ বিলের মধ্যদিয়ে পালিয়ে যায়। পরে বিলের গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ইউনুসকে পাওয়া যায়। তাকে উদ্ধার করে কলারোয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নেত্রকোণা

নেত্রকোণায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দুই যুবক নিহত হয়েছেন, যারা মাদক কারবারি বলে দাবি পুলিশের। আহত হয়েছেন তিন পুলিশ সদস্য।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত একটার দিকে সদর উপজেলার মদনপুর ইউনিয়নের মনাং গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। নিহতদের নামপরিচয় জানা না গেলেও তারা মাদক চোরাকারবারে জড়িত বলে দাবি করছে পুলিশ।

নেত্রকোণা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বোরহান উদ্দিন খান জানান, মনাং গ্রামে কিছু মাদক কারবারির জড়ো হওয়ার খবরের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালাতে যায় পুলিশ। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক কারবারিরা পুলিশের উপর গুলি চালায়। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। দুই পক্ষে গোলাগুলির এক পর্যায়ে দুইজন আহত হন। পরে তাদের নেত্রকোণা সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক দুজনকেই মৃত ঘোষণা করেন।

গাইবান্ধা

গাইবান্ধায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে জুয়েল মিয়া নামের এক মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছেন।

এ ঘটনায় আহত হয়েছে তিন পুলিশ সদস্য। এসময় তার কাছে থেকে একটি দেশিয় তৈরি আগ্নেয়াস্ত্র, গুলি ও বিপুল পরিমান মাদক উদ্ধার করা হয়েছে। গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার বালাসীঘাটে গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটেছে। জুয়েল শহরের ব্রিজ রোড কালীবাড়ী পাড়া এলাকার মৃত নছিম ড্রাইভারের ছেলে।

আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন, এএসআই রহিম, এএসআই মশিউর ও কনস্টেবল আব্দুর রাজ্জাক। তারা গাইবান্ধা আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

গাইবান্ধা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খান মোহাম্মদ শাহরিয়ার জানান, দীর্ঘদিন ধরে জুয়েল গাইবান্ধার বিভিন্ন এলাকায় মাদক সরবরাহ ও বিক্রি করতেন। গোপন খবরে  শুক্রবার গভীর রাতে তাকে আটকের চেষ্টাকালে তিনি পুলিশের ওপর গুলি চালায়। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও গুলি ছুড়লে জুয়েল নিহত হয়। নিহত জুয়েলের বিরদ্ধে অন্তত এক ডজন মাদক মামলা রয়েছে।

ঝিনাইদহ

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে শামীম হোসেন (৪৬) নামে এক মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় কালীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) অমিত দাস, সহকারি উপ- পরিদর্শক (এএসআই) শামীম হোসেন, পুলিশ কনস্টেবল নাজিম উদ্দীন ও রতন আহত হয়েছেন বলে পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক সাড়ে ১১টার দিকে শহরের মোবারকগঞ্জ সুগার মিলের পাশে ওয়াপদা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মাদক বিক্রেতা শামিম ওই উপজেলার আড়পাড়ার শিবনগর গ্রামের মমিন সরদারের ছেলে। পুলিশ জানায়, তার নামে থানায় নয়টি মাদকদ্রব্য মামলা রয়েছে।

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান খান জানান, কালীগঞ্জ পৌরসভা এলাকার ওয়াপদা রোডের একটি পরিত্যক্ত ভবনে মাদক বেচাকেনা হচ্ছে। এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই ভবনে অভিযান চালানো হয়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক বিক্রেতারা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। উভয়পক্ষের মধ্যে গুলি বিনিময়ের পর অন্যান্য মাদক বিক্রেতারা পালিয়ে গেলেও ঘটনাস্থল থেকে শামীমকে আহত অবস্থায় আটক করা হয়। পরে তাকে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ওসি আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, তিন রাউন্ড গুলি, ৪৮০ইয়াবা ও ১৭ বোতল ফেনসিডিল জব্দ করা হয়েছে।

শেরপুর

শেরপুরে পুলিশের সাথে কথিত বন্দুকযুদ্ধে মাদকসহ ২১ মামলার আসামি আবুল কালাম আজাদ (২৮) ওরফে কালু নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় এক এসআইসহ দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। নিহত কালু সদর থানার চরপক্ষীমারী ইউনিয়নের মরাকান্দি খাসপাড়া গ্রামের মৃত মনতাজ আলীর ছেলে।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, গেল রাত আড়াইটার দিকে সদর থানা পুলিশের একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সদর উপজেলার সাতপাকিয়া গ্রামে মাদক উদ্ধারে অভিযান চালায়। এ সময় চরপক্ষীমারী ইউনিয়নের সাতপাকিয়া নামক স্থানে পৌঁছালে  পুলিশের সঙ্গে মাদক চোরাকাবারিদের গোলাগুলিতে আবুল কালাম আজাদ ওরফে কালু মারা যায়।

ঢাকাটাইমস/২৫মে/প্রতিনিধি/ওআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত