রাঙামাটিতে গুলিতে তিন ইউপিডিএফ কর্মী নিহত

রাঙামাটি প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৮ মে ২০১৮, ২৩:০৮ | প্রকাশিত : ২৮ মে ২০১৮, ০৯:৩৪

রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ইউনিয়নের বাঘাইহাটের গঙ্গারাম মুখ এলাকার দক্ষিণ করল্যাছড়ি গ্রামে প্রতিপক্ষের গুলিতে ইউপিডিএফর (ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট) তিনজন কর্মী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছে ১ জন।

সোমবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। রাঙামাটি পুলিশ সুপার আলমগীর কবির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। পুলিশ লাশগুলো উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়।

নিহতরা হলেন, ইউপিডিএফের সদস্য স্মৃতি চাকমা (৫০), অতল চাকমা (৩০) এবং ইউপিডিএফ সহযোগী সংগঠন গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের বাঘাইছড়ি উপজেলা শাখার সদস্য সঞ্জীব চাকমা (৩০)। এ ছাড়া আহত  হয়েছে ইউপিডিএফ সদস্য কানন চাকমা (৩০)।

স্থানীয় সূত্রগুলো জানায়, রবিবার রাতে রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ইউনিয়নের বাঘাইহাটের দক্ষিণ করল্যাছড়ি গ্রাম প্রধানের বাড়িতে সকালের নাস্তা করতে গিয়েছিলেন ইউপিডিএফের কয়েকজন কর্মী। আগে থেকে এ খবর পেয়ে প্রতিপক্ষের ১০-১২ জনের একটি সশস্ত্র দল বাড়ির আশপাশে অবস্থান নেয়।

সকালে ইউপিডিএফ কর্মীরা ঘুম থেকে উঠে ঘরের বার হলে ওত পেতে থাকা অস্ত্রধারীরা তাদের লক্ষ্য করে  ব্রাশফায়ার করে।

এতে ঘটনাস্থলে নিহত হন ইউপিডিএফের সদস্য স্মৃতি চাকমা, অতল চাকমা ও সঞ্জীব চাকমা (৩০)। আহত হন কানন চাকমা। এরপর সন্ত্রাসীরা ফাঁকা গুলি করতে করতে ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়।

এই ঘটনার জন্য জেএসএস সংস্কার দলকে দায়ী করে একটি বিবৃতি দিয়েছে ইউপিডিএফ। ইউপিডিএফের তথ্য প্রচার বিভাগের নিরণ চাকমার পাঠানো বিবৃতিতে ইউপিডিএফ রাঙামাটি সমন্বয়ক সচল চাকমা বলেন, এ ঘটনার জন্য জেএসএস সংস্কার দল দায়ী।

অভিযোগ অস্বীকার করে জেএসএস এমএন লারমা দলের সহ-তথ্য প্রচার সম্পাদক প্রশান্ত চাকমা বলেন, এ ঘটনায় ইউপিডিএফের অভ্যন্তরীণ কোন্দলে হয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে জেএসএস দলের সম্পৃক্ততা নেই।
এ ঘটনার পর সাজেক এলাকায় মানুষের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। তবে এখন পর্যন্ত পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। থানায় কোনো মামলাও হয়নি।

(ঢাকাটাইমস/২৮মে/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত