মাঠে শেখ হাসিনাকে সহযোগিতার যোগ্য নেতৃত্ব চাই: দোলন

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১১ জুন ২০১৮, ২২:৫৮ | প্রকাশিত : ১১ জুন ২০১৮, ২১:১৫

মাঠ পর্যায়ে জনগণ ও নেতাকর্মীদের সঙ্গে সার্বক্ষণিক আন্তরিক যোগাযোগ রক্ষার মাধ্যমে সরকারকে সহযোগিতা করবে ফরিদপুর-১ আসনে এমন নেতৃত্ব বেছে নিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে দাবি জানিয়েছেন কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যতম সহসভাপতি আরিফুর রহমান দোলন।

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ফরিদপুর-১ আসনের মনোনয়ন-প্রত্যাশী দোলন বলেন, এ অঞ্চলে এমন নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠিত হোক, যিনি  এখানকার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী, সমর্থক ও ভোটারদের সম্মান অক্ষুণ্ন রাখবেন। জনগণ ও নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ রেখে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে মাঠপর্যায়ে নেতৃত্ব সৃষ্টি করবেন।

আজ সোমবার সন্ধ্যায় আলফাডাঙ্গা আরিফুজ্জামান পাইলট উচ্চবিদ্যালয় প্রাঙ্গণে উপজেলা আওয়ামী লীগের সদ্যপ্রয়াত সহ-সভাপতি ও বুড়াইচ ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা মকিবুল হাসান পুটু মিয়ার স্মরণসভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য দোলন।

আলফাডাঙ্গা পৌর কৃষক লীগ আয়োজিত স্মরণসভা ও মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনটির আহ্বায়ক আব্দুল আওয়াল ফকির ও পরিচালনা করেন সদস্যসচিব রফিকুল ইসলাম রাজিব।

সমাবেশে উপস্থিত সমবেতদের উদ্দেশে কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের সহসভাপতি বলেন, ‘বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সবচেয়ে প্রাচীন সংগঠন কৃষক লীগের পক্ষ থেকে আমরা আবদার করি, আগামী দিনেও যেন শেখ হাসিনা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হতে পারেন, আপনারা সেই সমর্থন করবেন, সহযোগিতা করবেন।’

ফরিদপুরের স্বার্থেই শেখ হাসিনাকে আবার ক্ষমতায় আনতে হবে বলে মনে করেন সমাজসেবা সংগঠন কাঞ্চন মুন্সী ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান দোলন। বলেন, ‘আমাদের স্বার্থে, দ্বিতীয় পদ্মা সেতু পাওয়ার স্বার্থে শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় আনতে হবে। কয়েক দিন আগে বাজেট পেশকালে দ্বিতীয় পদ্মা সেতুর অঙ্গীকার করেছেন অর্থমন্ত্রী। অর্থমন্ত্রী দ্বিতীয় পদ্মা সেতুর সংকল্প নিয়েছেন। একটি পদ্মা সেতু তো আমরা পাচ্ছি। দ্বিতীয় পদ্মা সেতুও আমরা পাব যদি শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় আনতে পারি।

এ সময় বৃহত্তর ফরিদপুরের উন্নয়ন প্রসঙ্গেও কথা বলেন আলফাডাঙ্গার কৃতী সন্তান আরিফুর রহমান দোলন। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন-প্রত্যাশী তরুণ এ নেতা বলেন, বৃহত্তর ফরিদপুরের উন্নয়ন ও অগ্রগতি আরো বেশি গতিতে পেতে হলে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই। তাকে আবার ক্ষমতায় আানতে হবে।

ঢাকাটাইমস ও সাপ্তাহিক ‘এই সময়’-এর সম্পাদক ওই  অঞ্চলে যোগ্য, সৎ ও মেধাবী নেতৃত্ব পাওয়ার আকাঙ্ক্ষাও ব্যক্ত করে বলেন, ‘যে নেতৃত্ব সজীব ওয়াজেদ জয়ের ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে সহযোগিতা করবে। যে নেতৃত্ব সৎ ও আধুনিক বাংলাদেশ গঠনে শেখ হাসিনা ও সজীব ওয়াজেদ জয়কে মাঠে থেকে সহযোগিতা করবে।’

এ সময় দোলন ফরিদপুর-১ আসন এলাকায় যোগ্য নেতৃত্বে প্রতিষ্ঠার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশে দাবি জানান। দোলন বলেন,  ‘আমরা শেখ হাসিনার কাছে এই দাবি রাখি, এ অঞ্চলে এমন নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠিত হোক, যিনি  এখানকার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী, সমর্থক ও ভোটারদের সম্মান অক্ষুণ্ন রাখবেন। আমরা সেই নেতৃত্ব দাবি করি যিনি মানুষের অধিকার এবং তাদের সম্মান নিশ্চিত করার জন্য সব জায়গায় ভূমিকা রাখবেন। আমরা শেখ হাসিনার কাছে দাবি রাখি, এ অঞ্চলে আগামীতে জাতীয় সংসদে এমন নেতৃত্ব তিনি দেবেন, যেই নেতৃত্ব ঐক্যবদ্ধ রেখে সবাইকে প্রতিহিংসা নয়, প্রতিযোগিতার মাধ্যমে মাঠপর্যায়েও নেতৃত্ব সৃষ্টি করবেন।’

এর আগে এই তরুণ সমাজসেবক আওয়ামী লীগের সদ্যপ্রয়াত সহ-সভাপতি ও বুড়াইচ ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা মকিবুল হাসান পুটু মিয়ার স্মৃতিচারণা করেন। তিনি বলেন, ‘মকিবুল হাসান পুটু মিয়া একজন প্রতিবাদী মানুষের নাম। আলফাডাঙ্গার ক্রীড়াঙ্গন, আলফাডাঙ্গার সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডসহ সব জায়গায় তার বিচরণ ছিল। অত্যন্ত ভালো মানুষ, গুণী মানুষ ছিলেন। আমরা এ মানুষটিকে ফিরে পাব না। কিন্তু তার ছেড়ে যাওয়া যে ভালো কর্ম, আমরা অবশ্যই সেই ভালো কর্মগুলো অনুসরণ করার চেষ্টা করতে পারি। তার আত্মা যেন শান্তিতে থাকে সেই কামনা করব আমরা।’

পুটু মিয়ার ছেলে আলফাডাঙ্গা সরকারি কলেজের উপাধ্যক্ষ সারেকুল হাসান নয়নের সঞ্চালনায় সভায় আরো বক্তব্য দেন জেলা কৃষক লীগের সদস্যসচিব ও জেলা পরিষদ সদস্য শেখ শহীদুল ইসলাম শহীদ, উপজেলা চেয়ারম্যান এম এম জালাল উদ্দীন আহমেদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এস এম আকরাম হোসেন, কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য শেখ শওকত হোসেন, ফরিদপুর জজ কোর্টের এপিপি অ্যাডভোকেট প্রদীপ কুমার সেন লক্ষ্মণ, বোয়ালমারী উপজেলা কৃষক লীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক শামীম মোল্যা, টগরবন্দ ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি আলমগীর হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা হাফিজুদ্দীন, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আকরাম হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম তৌকির আহমেদ ডালিম প্রমুখ।

স্মরণসভা ও ইফতার মাহফিলে আলফাডাঙ্গা পৌর মেয়র ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান সাইফার, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু হোসেন তালুকদার, উপজলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি এনায়েত হোসেন, গোপালপুর ইউপি চেয়ারম্যান ইনামুল হাসান, আলফাডাঙ্গা, বোয়ালমারী, মধুখালী উপজেলা আওয়ামী লীগ, তার সহযোগী ও অঙ্গসংগঠনের  নেতাকর্মীসহ প্রায় চার হাজার মানুষ অংশ নেন।

(ঢাকাটাইমস/১১জুন/প্রতিনিধি/ইএস/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজপাট বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত