প্রায় প্রস্তুত জাতীয় ঈদগাহ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১২ জুন ২০১৮, ২১:৫০

রাজধানীর প্রধান ঈদের জামাতের জন্য প্রায় প্রস্তুত জাতীয় ঈদগাহ। বরাবরের মতো এবারও এখানে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে প্রস্তুতি চলছে। একই জামাতে নারীদের নামাজ আদায়ের জন্য থাকছে আলাদা বিশেষ ব্যবস্থা।

মঙ্গলবার সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, মাঠে প্যান্ডেল তৈরির মূল কাজ প্রায় শেষ। প্যান্ডেলে ৭০০টি সিলিং ফ্যান লাগানো হচ্ছে। বৃষ্টি হলে পানি যাতে ভেতরে না পড়ে সে জন্য শামিয়ানার ওপর বিছানো হয়েছে পানিরোধক ত্রিপল। আর নামাজের স্থানের নিচু জায়গাগুলো বালু ও মাটি দিয়ে সমান করা হচ্ছে।

সংশ্লিষ্ট কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নামাজ আদায়ের মূল প্যান্ডেলের ভেতরে জায়নামাজ বিছানো হবে চাঁদরাতে। এবার বর্ষাকালে ঈদ হচ্ছে বলে সেভাবেই সব প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে আগেভাগে।

ঈদগাহ মাঠের সীমানা ও আশপাশের গাছে রং করার কাজও শেষ হয়েছে ইতিমধ্যে। এ ছাড়া মাঠের ঘাস কেটে সমান করা হয়েছে।

জাতীয় ঈদগাহ মাঠ প্রস্তুতের দায়িত্ব পাওয়া ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মিরাজ সরদার অ্যান্ড সন্সের ১২০ জন শ্রমিক কাজ করছেন বলে জানান এর স্বত্বাধিকারী মো. মোজাম্মেল হক।

মাঠ প্রস্তুতের অগ্রগতি সম্পর্কে জানতে চাইলে মোজাম্মেল হক ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘প্যান্ডেলের কাজ শতভাগ শেষ হয়েছে। সার্বিকভাবে মূলকাজের প্রায় ৯০ শতাংশ শেষ হয়েছে। বুধবারের মধ্যে আমরা পুরো কাজ শেষ করতে পারব বলে আশা করছি। তার পরও যদি কোনো কাজ বাকি থাকে, হাতে সময় আছে, ঈদের অন্তত এক দিন আগে শেষ করে ফেলব।’

বৃষ্টির হলে মুসল্লিরা ঈদগাহে কোনো সমস্যায় পড়বেন কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে ঠিকাদার জানান, পুরো মাঠ রেইনপ্রুফ (বৃষ্টিরোধক) করা হয়েছে। প্যান্ডেলের ভেতর মুসল্লিদের কোনো সমস্যা হবে না। মাঠে পানি নিষ্কাশনের যথেষ্ট ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। দুই প্যান্ডেলের মাঝখানে পানি যাওয়ার নালা তৈরি করা হয়েছে। এ ছাড়া অতিরিক্ত বৃষ্টি হলে ঢাকা ওয়াসা তাৎক্ষণিক পানি নিষ্কাশনের জন্য প্রস্তুত থাকবে এখানে।

জাতীয় ঈদগাহে প্রতিবছরের মতো ঈদের জামাতে অংশ নেবেন রাষ্ট্রপতি, মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, প্রধান বিচারপতি, বিভিন্ন মুসলিম দেশের কূটনীতিকসহ সাধারণ মানুষ।

ঈদগাহ মাঠে কর্মরত পুলিশ কর্মকর্তা শফিক জানান, মুসল্লিদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিচ্ছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ। থাকবে র‌্যাব। ইতিমধ্যে মাঠে ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরাসহ বিভিন্ন নিরাপত্তা সরঞ্জাম স্থাপনের কাজ শুরু হয়েছে। এ ছাড়া ঈদগাহ প্রঙ্গণে মোতায়েন করা হবে বিপুলসংখ্যক পুলিশ সদস্য। যেকোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ঈদগাহের চারপাশে সাদাপোশাকে দায়িত্ব পালন করবেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন সূত্রে জানা গেছে, জাতীয় ঈদগাহে মুসল্লি ধারণক্ষমতা প্রায় ৯০ হাজার। এর মধ্যে নারীদের জন্য পর্দা দিয়ে তৈরি করা হয়েছে আলাদা নামাজের জায়গা। সেখানে ঈদের জামাতে অংশ নিতে পারবেন পাঁচ হাজার নারী। তাৎক্ষণিক প্রয়োজনে র‍্যাব-৩ এর পক্ষ থেকে পরিচালনা করা হবে একটি প্রাথমিক চিকিৎসা কেন্দ্র।

(ঢাকাটাইমস/১২জুন/কারই/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত