রেকর্ড গড়ার দিনে ইংলিশদের সিরিজ জয়

ক্রীড়া প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২০ জুন ২০১৮, ১০:৩২

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নটিংহ্যামশায়ারে রেকর্ড গড়ার ইতিহাসের দিনে সিরিজও জিতে নিল ইংল্যান্ড। ব্যাটসম্যানদের ইতিহাস সেরা ইনিংস আর বোলারদের সবচেয়ে বড় ব্যবধানে জয়ের রেকর্ড সবই এদিন ছিল ইংলিশদের দখলে।

পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচেই সিরিজ নিশ্চিত করলো ইংল্যান্ড। ইনিংসের শুরুতে ব্যাট হাতে ৪৮১ রানের স্কোর তুলে বিশ্বরেকর্ড গড়েন ব্যাটসম্যানরা। আর বল হাতে অজিদের ২৩৯ রানে থামিয়ে ওয়ানডে ইতিহাসের সবচেয়ে বড় ব্যবধানের জয় পেল ইংলিশরা। তাদের ইনিংসের অর্ধেক রানও তুলতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। ইংলিশ বোলাদের কাছে ২৪২ রানের বিশাল ব্যবধানে উড়ে যায় অজিরা।

ওয়ানডে ইতিহাসে এর আগেও সবচেয়ে বড় জয় ছিল ইংল্যান্ডের। ২০১৫ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ২১০ রানের জয় পেয়েছিল তারা। এবার নিজেদের রেকর্ড ভেঙে আবার নতুন ইতিহাসের জন্মদিল তারা। তাছাড়া একই ম্যাচে ৭০ এর কম বল খেলে জোড়া সেঞ্চুরিও করেন দুই ইংলিশ ব্যাটসম্যান জনি বেয়ারস্টো এবং অ্যালেক্স হেলস।

অপরদিকে নিজেদের ইতিহাসের সবচেয়ে বাজে রেকর্ডের জন্মদিল অস্ট্রেলিয়া। এটি ছিল অজিদের ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে বাজে হার। এর আগে ১৯৮৬ সালে নিউজিল্যান্ডের কাছে ২০৬ রানের ব্যবধানে হেরেছিল তারা।

ট্রেন্ট ব্রিজে মঙ্গলবার প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ছয় উইকেট হারিয়ে ৪৮১ রান সংগ্রহ করে ইংল্যান্ড। যেটা ২০১৬ সালে নিজেদেরই গড়া ৪৪৪ রান ছাড়িয়ে হয়েছে ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ দলীয় রানের ইনিংস।

ইংল্যান্ডের হয়ে রান উৎসবে মেতে উঠেন দুই সেঞ্চুরিয়ান ব্যাটসম্যান জনি বেয়ারস্টো ও অ্যালেক্স হেলস। দলের সর্বোচ্চ রানও আসে এই দুই জনের ব্যাট থেকে। তাদের পাশাপাশি ব্যাটিংয়ের ভিত তৈরিতে সাহায্য করেন দুই ওপেনার রয় এবং অধিনায়ক মর্গান।দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৯২ বলে ১৪৭ রানের ইনিংস খেলেন অ্যালেক্স হেলস।তার ইনিংসটি সাজানো ছিল ১৬টি বাউন্ডারি এবং পাঁচটি ছক্কা দিয়ে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৯২ বলে ১৩৯ রান করেন জনি বেয়ারস্টো। এই ইনিংস করার পথে তিনি খেলেন ১৫ টি চার এবং পাঁচটি ছয়। আর ৩০ বলে ৬৭ রানের টর্ণেডো ইনিংস আসে অধিনায়ক ইয়ন মরগ্যানের ব্যাট থেকে।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৩৭ ওভারে ২৩৯ রানেই থেমে যায় অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস। দ্রুত রান তোলার চেষ্টায় অজিরা উইকেট হারিয়েছে নিয়মিত। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৩৯ বলে ৫১ রান করেছেন ওপেনার ট্রাভিস হেড। এটিই ছিল দলের একমাত্র ফিফটি।

ইংল্যান্ডের হয়ে আদিল রশিদ ৪টি, মঈন আলি ৩টি উইকেট। আর দুইটি উইকেট সংগ্রহ করেন ডেভিড উইলি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড: ৪৮১/৬(৫০ ওভার)

(রয় ৮২, বেয়ারস্টো ১৩৯, হেলস ১৪৭, বাটলার ১১, মর্গ্যান ৬৭, মইন ১১, রুট ৪*, উইলি ১*; রিচার্ডসন ৩/৯২, অ্যাগার ১/৭০)

অস্ট্রেলিয়া: ২৩৯(৩৭ ওভার)

(শর্ট ১৫, হেড ৫১, মার্শ ২৪, স্টয়নিস ৪৪, ফিঞ্চ ২০, ম্যাক্সওয়েল ১৯, পেইন ৫, অ্যাগার ২৫, রিচার্ডসন ১৪, টাই ৫*, স্ট্যানলেক ১; উড ০/৩৮, উইলি ২/৫৬, রুট ০/১৯, মইন ৩/২৮, প্লাঙ্কেট ০/৪১, রশিদ ৪/৪৭)।

ফল: ইংল্যান্ড ২৪২ রানে জয়ী

সিরিজ: ৫ ম্যাচ সিরিজে ৩-০ তে এগিয়ে ইংল্যান্ড

ম্যান অব দা ম্যাচ: অ্যালেক্স হেলস

(ঢাকাটাইমস/২০জুন/এইচএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত