ইন্দোনেশিয়ায় ফেরি ডুবে ১৮০ যাত্রী নিখোঁজ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২০ জুন ২০১৮, ১৫:০৫ | প্রকাশিত : ২০ জুন ২০১৮, ১৫:০০

ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রা দ্বীপের তোবা লেকে সোমবার রাতে একটি ফেরি ডুবে কমপক্ষে ১৮০ জন যাত্রী নিখোঁজ হয়েছেন। এর আগে মঙ্গলবার ১২৮ যাত্রী নিখোঁজ হওয়ার খবর প্রকাশিত হয়েছিল।

বুধবার বিবিসি জানায়, ফেরিটিতে ধারণ ক্ষমতার চেয়ে তিন গুণ বেশি যাত্রী নেয়া হয়েছিল। তোবা লেক থেকে এখন পর্যন্ত ১৮ জনকে জীবিত ও দুজনকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে।

আগ্নেয়গিরি বিস্ফোরিত লেকটিতে লোকজন ঈদের ছুটি উপভোগ করছিল। এটি বিশ্বের সবচেয়ে গভীরতম লেক হিসেবে পরিচিত। ইন্দোনেশিয়ায় প্রায়শই নৌ দুর্ঘটনার খবর প্রকাশিত হয়। আর নিরাপত্তা ব্যবস্থাও খুব নাজুক।

বৃষ্টি ও প্রচণ্ড বাতাসের মধ্যে উদ্ধাকারী দল জীবিতদের উদ্ধারে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। ধারণা করা হচ্ছে, ফেরিটির ভিতরে অনেকেই আটকা পড়ে মারা গেছেন।

মেদান শহরের তল্লাশি ও উদ্ধার সংস্থার প্রধান বুদিয়ান বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানান, ফেরি ডুবে যাওয়ার কয়েক ঘন্টার মধ্যে ১৮ জনকে জীবিত ও দুজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বাকিদের খোঁজে তল্লাশি চলছে।

ফেরিতে থাকা যাত্রীদের আত্মীয়স্বজন অধীর আগ্রহে গত দুই দিন তীরে অপেক্ষা করছে।

ফজর আলমসাহা পুত্রা বিবিসিকে বলেন, ‘আল্লাহ আমাদের পরীক্ষা নিচ্ছেন।’ তার ভাই বাগাস প্রামা অনন্ত নিখোঁজ যাত্রীদের মধ্যে একজন।

তোবা লেক ৪৫০ মিটার (১৫০০ ফুট) গভীর। প্রাচীন আগ্নেয়গিরি বিস্ফোরণের কারণে এর গভীরতা এতটা বেশি।

এই লেকের একপাশে একটি সুন্দর দ্বীপ ও অন্যপাশে একটি শহর। এর মাঝ দিয়ে ফেরিগুলো চলাচলা করে।

মুসলিম অধ্যুষিত দেশটিতে এখন পর্যটন মৌসুম চলছে। ঈদের ছুটিতে লাখ লাখ মানুষ বিভিন্ন স্থানে বেড়াতে যাচ্ছে।

(ঢাকাটাইমস/২০জুন/এসআই)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত